দক্ষিণ কোরিয়া আবেদন লিংক | আবেদন করার যোগ্যতা | আবেদন করার নিয়মাবলী

আপনি যদি একজন কোরিয়া লটারি প্রার্থী হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই অবশ্যই ইপিএস দক্ষিণ কোরিয়া লটারি ২০২২ সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তারিখ সম্পর্কে জানতে হবে। নিচের অংশে আমরা তারিখ এবং সময় গুলো শেয়ার করেছি।

ইপিএস কোরিয়া লটারি ২০২২ 

·              সংস্থা: বোয়েসেল

·              বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ: ১৭ আগষ্ট ২০২২ইং

·              ক্যাটাগরি:  টি

·              শূন্যপদের সংখ্যা: ২৪০০০জন

·             আবেদন মাধ্যম: অনলাইন

·              অনলাইনে আবেদন শুরু: ২৮ আগষ্ট ২০২২ইং

·              আবেদনের শেষ সময়: ৩০ আগষ্ট ২০২২ইং

·              বয়সসীমা : ৩১ আগষ্ট ২০২২ইং থেকে ২৮ আগষ্ট ২০০৪ইং মধ্যে

·              ফলাফল প্রকাশের তারিখ: ৩১ আগষ্ট ২০২২ইং , দুপুর ১২টায়

·              ফলাফল দেখার ঠিকানা: http://www.boesl.gov.bd/


আরো পড়ুন- দক্ষিণ কোরিয়া লটারি ২০২২| দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার উপায়


দক্ষিণ কোরিয়া লটারি আবেদনের নিয়ম ২০২২

২৮শে আগস্ট থেকে দক্ষিণ কোরিয়া লটারি আবেদন শুরু হয়েছে। এই আবেদন প্রক্রিয়া ২৮, ২৯ এবং ৩০ শে অগাস্ট পর্যন্ত চলবে। সরাসরি http://eps.boesl.gov.bd/ এই লিঙ্কে ভিজিট করে অনলাইনে আবেদনের কাজ সম্পন্ন করা যাবে। 


  • আবেদন করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে eps.boesl.gov.bd এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।
  • ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর আপনি একটি Submit Application অপসন দেখতে পারবেন।
  • Submit Application অপসনে ক্লিক করার পর আপনাকে একটি ফরম দেওয়া হবে।
  • উক্ত আবেদন ফরম আপনাকে যথাযথভাবে পূরণ করে তা সাবমিট করতে হবে।
  • আবেদন ফরম সাবমিট করার পর আপনাকে বেশ কিছু তথ্য দেয়া হবে যে সকল তথ্য ফাঁকা স্থানে আপনাকে আপনার পার্সোনাল তথ্যগুলো ধাপে ধাপে পূরণ করতে হবে।
  • সর্বশেষে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে।


দক্ষিণ  কোরিয়ার আবেদনের পেমেন্ট পদ্ধতি





আবেদনের যোগ্যতা ও নিয়মাবলিঃ

দক্ষিণ কোরিয়া লটারি আবেদনের পূর্বে আপনাকে অবশ্যই কিছু আবেদনের যোগ্যতা ও নিয়মাবলি সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ইতোমধ্যে বিজ্ঞপ্তিতে এসকল আবেদনের যোগ্যতা ও নিয়মাবলি শেয়ার করা হয়েছে। নিচের অংশ তা জেনে নিন।

  • আবেদনকারীর জন্মতারিখ ২৯ অগাস্ট, ১৯৮২ খ্রি. থেকে ২৮ অগাস্ট, ২০০৪ খ্রিস্টাব্দের মধ্যে হতে হবে।
  • রাষ্ট্রের কোন আদালত কর্তৃক সাজা প্রাপ্ত নন এবং ইতােপূর্বে দক্ষিণ কোরিয়ার ইমিগ্রেশন কর্তৃক ভিসা/সিসিভিআই বাতিল হয়নি।
  • পূর্বে দক্ষিণ কোরিয়ায় অবৈধভাবে অবস্থান বা কোরিয়া থেকে ফেরত পাঠানাে হয়নি।
  • দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থানকালে কারাদণ্ড, শান্তি বা জরিমানা হয়নি।
  • ই-৯/১০ ভিসায় দক্ষিণ কোরিয়ায় সর্বমােট ৫ বছরের বেশি অবস্থান করেনি।
  • যাদের উপর বিদেশ যাত্রায় বাংলাদেশ সরকারের কোনাে নিষেধাজ্ঞা নেই।
  • কোরীয় ভাষায় দক্ষতাসম্পন্ন এবং যাদের কালার ব্লাইন্ডনেস ও কালার উইকনেস নেই।
  • উল্লেখ্য যে, ডিস্ক বিচ্যুতি, হাতের আঙুল কাটা ইত্যাদি শারীরিক সমস্যাযুক্ত ব্যক্তিরা কোরীয় ভাষা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে, তবে ২য় রাউন্ড | পরীক্ষার সময় তার কর্মসক্ষমতার উপর চূড়ান্ত নির্বাচন নির্ভর করবে। আরও উল্লেখ্য যে, অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের সময় বৈধ মেশিন রিডেবল পাসপাের্ট অনুযায়ী। | পাসপাের্ট নম্বর, নাম, জন্মতারিখ ও অন্যান্য তথ্যসহ ইনপুট দিতে হবে এবং পাসপাের্টের ছবিযুক্ত অংশের স্ক্যানকপি (৪৫-৬০KB) আপলােড করতে হবে। মেয়াদ। উত্তীর্ণ পাসপাের্ট দিয়ে আবেদন করা যাবে না।

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.