Last update
Loading...

মালদ্বীপ পার্লামেন্ট বন্ধ করে দিয়েছে সেনাবাহিনী

মালদ্বীপের নিরাপত্তা বাহিনী দেশটির পার্লামেন্ট কমপ্লেক্স বন্ধ করে দিয়েছে, বিরোধী এমপিদের গ্রেফতার করেছে। প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিন কারারুদ্ধ রাজনীতিবিদদের মুক্তি দিতে অস্বীকার করার পর সৃষ্ট সঙ্কটের মধ্যে সেনাবাহিনী এ অবস্থান গ্রহণ করল। রোববার বিরোধী দলের সদস্যরা দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেলের বরখাস্ত চেয়ে পার্লামেন্টে একটি আবেদন করার পর সেনাবাহিনীরা পার্লামেন্ট ভবন ঘিরে ফেলে।
এর আগে সুপ্রিম কোর্ট আটক রাজবন্দিদের মুক্তি দিতে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দেয়। কিন্তু অ্যাটর্নি জেনারেল ওই আদেশ পালন করতে সম্মত হননি। সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদকেও মুক্তি দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তিনি এখন চিকিৎসার জন্য বিদেশে অবস্থান করছেন। দুর্নীতির অভিযোগে তার সাজা হয়েছিল। পরে চিকিৎসার জন্য বিদেশে গিয়ে আর দেশে ফেরেননি। দেশটির সর্বোচ্চ আদালত ১২ এমপিকে পুনর্বহাল করার নির্দেশও দিয়েছে। এর ফলে ৮৫ সদস্যবিশিষ্ট পার্লামেন্টে বিরোধীদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রতিষ্ঠা হয়ে যায়। সেনাপ্রধান জানিয়েছেন, তিনি অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মদ আনিলের আদেশ অনুসরণ করবেন, দেশকে নৈরাজ্যের দিকে যেতে দেবেন না। এদিকে পুলিশ বিরোধী দলের দুই পার্লামেন্ট সদস্যকে গ্রেফতার করেছে। তারা মালে বিমানবন্দরে অবতরণ করেছিল বলে এক মুখপাত্র আলজাজিরাকে জানিয়েছেন। সুপ্রিম কোর্ট বরখাস্ত করা যে ১২ এমপিকে পুনর্বহালের নির্দেশ দিয়েছে, এ দুজন তাদের মধ্যে রয়েছেন। এদিকে জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব সুপ্রিম কোর্টের আদেশ পালন করার জন্য মালদ্বীপের প্রতি আহ্বান জানিয়েছন।

0 comments:

Post a Comment