Last update
Loading...

যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিম ও আফ্রিকান আমেরিকানদের ওপর নজরদারি করা হচ্ছে

যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টন শহরের পুলিশ বেছে বেছে মুসলিম ও আফ্রিকান আমেরিকানদের ওপর ব্যাপক গুপ্তচরবৃত্তি করেছে। এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাদের কয়েক হাজার পোস্টের ওপর অন্যায়ভাবে গোয়েন্দাগিরি চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সিভিল লিবার্টি ইউনিয়ন (এসিএলইউ)। বোস্টন পুলিশ বিভাগ (বিপিডি) জিওফিডিয়া নামে একটি নজরদারি ব্যবস্থা বা সফটওয়্যার দিয়ে ২০১৪ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত নিরাপত্তা বাহিনী ও ধর্মসহ বিভিন্ন বিষয়ের ওপর অনলাইনের মন্তব্যের ওপর পর্যবেক্ষণ করেছে। ম্যাসাচুসেটসভিত্তিক এসিএলইউ বুধবার এসব তথ্য জানিয়েছে। তারা এক বিবৃতিতে বলেছে, বিপিডি সাধারণ মানুষের সাধারণ কথাবার্তাকে তাদের যৌক্তিক নজরদারির লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করেছে। পুলিশের উচিত, মারাত্মক অপরাধগুলো প্রতিরোধ কিংবা সমাধানে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া। জনঅধিকারবিষয়ক সংগঠন এসিএলইউ জানায়,
বিপিডি অন্যায়ভাবে মুসলিম ও আফ্রিকান আমেরিকারদের ওপর নজরদারি করছে। তাদের নজরদারি ব্যবস্থায় কোনো নিরপরাধ আরবি শব্দ কিংবা ব্ল্যাকলাইভসম্যাটার ও মুসলিমলাইভসম্যাটার হ্যাশট্যাগ দেখলেও সংকেত দেয়ার ব্যবস্থা রেখেছিল। যুক্তরাষ্ট্রে আফ্রিকান আমেরিকানদের ওপর পুলিশের নিষ্ঠুরতার প্রতিবাদে ব্ল্যাকলাইভসম্যাটার হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করেন অ্যাক্টিভিস্টরা। আর ২০১৫ সালে নর্থ ক্যারোলিনায় তিন মুসলিম শিক্ষার্থীকে হত্যার পর আমেরিকানদের ইসলামভীতি নিয়ে মনোযোগ আকর্ষণ করতে মুসলিমলাইভসম্যাটার হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করা হচ্ছে। এসিএলইউ জানায়, ধর্ম-বর্ণ ও নৃতাত্ত্বিক পরিচয়ের ওপর ভিত্তি করে মানুষকে সন্দেহের তালিকায় রাখা হচ্ছে। কাজেই এক্ষেত্রে সব ধরনের অপরাধ তদন্তে এজাতীয় সফটওয়্যার ব্যবহার করা উচিত। কেবল ধর্ম-বর্ণ ও নৃতাত্ত্বিক পরিচয়কে টার্গেট বানানো উচিত হবে না। এক্ষেত্রে স্বচ্ছতা ও প্রক্রিয়াগত নিরাপত্তা থাকা দরকার।

0 comments:

Post a Comment