Last update
Loading...

কৌশলগত ট্যাকটিক্যাল অস্ত্র তৈরি করছে পাকিস্তান!

স্বল্পপাল্লার ট্যাকটিক্যাল অস্ত্রসহ নতুন ধরনের পরমাণু অস্ত্র তৈরি করছে পাকিস্তান। এর ফলে ওই অঞ্চলে আরো বেশি বিপদের আশঙ্কা বাড়ছে। এমনই সতর্কবার্তা দিলেন আমেরিকার গোয়েন্দা প্রধান। একইসাথে তিনি বলেছেন, পাকিস্তানের উগ্রবাদী সংগঠনগুলো ভারতের অভ্যন্তরে হামলা চালিয়ে যেতে পারে। এরফলে দুই প্রতিবেশী দেশের সম্পর্কে উত্তেজনার পারদ আরো চড়বে। জম্মুর সঞ্জুয়ান সেনা ছাউনিতে জইশ-ই-মহম্মদদের হামলার কয়েকদিন পরেই এই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মার্কিন ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্সের ডিরেক্টর ড্যান কোটস। সিনেট সিলেক্ট কমিটি অন ইন্টেলিজেন্স আয়োজিত বিশ্বজুড়ে বিপদ সংক্রান্ত মার্কিন কংগ্রেসের একটি শুনানিতে ওই মন্তব্য করেছেন কোটস। তিনি বলেছেন, পাকিস্তান নতুন ধরনের পরমাণু অস্ত্র তৈরি করছে। এরমধ্যে রয়েছে স্বল্প পাল্লার ট্যাকটিক্যাল অস্ত্র। কোটসের হুঁশিয়ারি, পাকিস্তান পরমাণু অস্ত্র তৈরির কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। স্বল্প পাল্লার ট্যাকটিক্যাল অস্ত্র ছাড়াও সমুদ্র ভিত্তিক ক্রুজ মিসাইল, এয়ার-লঞ্চড ক্রুজ মিসাইল এবং দূর পাল্লার ব্যালেস্টিক মিসাইল তৈরির কাজও চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান। এরফলে ওই অঞ্চলে নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিপদের আশঙ্কা বাড়বে। কোটস বলেছেন, নতুন পরমাণু অস্ত্র সংক্রান্ত সক্ষমতা বৃদ্ধি, সন্ত্রাসবাদ-দমনে সহযোগিতার ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণ, উগ্রবাদীদের সাথে যোগাযোগ বজায় রাখা ও চীনের সাথে ঘনিষ্ঠ হওয়ার মাধ্যমে পাকিস্তান মার্কিন স্বার্থের পক্ষে বিপদ তৈরির চেষ্টা অব্যাহত রাখবে। মার্কিন গোয়েন্দা প্রধান আরো বলেছেন, ইসলামাবাদের মদতপুষ্ট উগ্রবাদীরা পাকিস্তানে তাদের নিরাপদ আশ্রয়ের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ভারত ও আফগানিস্তানে হামলা চালিয়ে যাবে। উগ্রবাদীরা ওই অঞ্চলে মার্কিন স্বার্থের বিরুদ্ধেও হামলা চালিয়ে যাবে। পাকিস্তান ভিত্তিক উগ্র গোষ্ঠীগুলোর হামলার ফলে ভারতের সাথে পাকিস্তানের সম্পর্কের উত্তেজনা আরো বাড়বে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন কোটস। মার্কিন গোয়েন্দা প্রধান আরো বলেছেন, উগ্র গোষ্ঠীগুলোকে পাকিস্তানের মদত আফগানিস্তানের পরিস্থিতি জটিল করে তুলেছে।

0 comments:

Post a Comment