Last update
Loading...

আলোচনায় রাজি উত্তর কোরিয়া

দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আলোচনার প্রস্তাবে রাজি হয়েছে উত্তর কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তারা শুক্রবার এ খবর নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, অলিম্পিক গেমসকে সামনে রেখে আগামী সপ্তাহেই উচ্চ পর্যায়ের এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, আগামী মঙ্গলবার দুই দেশের মধ্যে এ বৈঠক আয়োজন করা হবে। আগামী মাসে দক্ষিণ কোরিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য শীতকালীন অলিম্পিক গেমসে উত্তর কোরিয়ার অ্যাথলেটদের অংশগ্রহণের উপায় বের করাই হলো এই বৈঠকের প্রধান লক্ষ্য।
চলতি সপ্তাহে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন বলেছিলেন, আসন্ন অলিম্পিক গেমসে প্রতিনিধিদল পাঠানো ‘দুই দেশের মানুষের মধ্যকার একতা প্রদর্শনের ভালো সুযোগ’। ধারণা করা হচ্ছে, সীমান্তবর্তী পানমুনজমে এই বৈঠকের আয়োজন করা হবে। অনুষ্ঠিত হলে এটি হবে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসের পর দুই দেশের প্রথম বৈঠক। তবে এ বৈঠকে দুই দেশের শীর্ষ পর্যায়ের কোন কোন কর্মকর্তারা অংশ নেবেন-তা এখনো স্পষ্ট হয়নি। দক্ষিণ কোরিয়ার একত্রীকরণ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাইক তায়ে-হিউন বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, শুক্রবার সকালে আলোচনার প্রস্তাব উত্তর কোরিয়ায় ফ্যাক্স করে পাঠানো হয়। তিনি বলেন, ‘দুই পক্ষ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি কিছু নথিও আদান-প্রদান করবে।’ এর আগে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন বলেছিলেন, শীতকালীন অলিম্পিক উত্তর ও দক্ষিণের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের ক্ষেত্রে ‘অনেক বড় সুযোগ’। তবে এই আলোচনার ‘কার্যকারিতা’ নিয়ে অনেকেই সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ভবনের এক শীর্ষ কর্মকর্তা বিবিসিকে জানিয়েছেন, অলিম্পিক গেমসে উত্তরের অংশগ্রহণের বিষয়টি চূড়ান্ত হয়ে যাওয়ার পর বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়ন সংক্রান্ত কিছু আলোচনাও হতে পারে।

0 comments:

Post a Comment