Last update
Loading...

নতুন বই আর পড়া হলো না আফরিনের

শিশু আফরিন (৮) নতুন বই হাতে পেয়েছে মাত্র কদিন আগে। বই পেয়ে সেকি উচ্ছ্বাস তার। এখনো সব বইয়ের পাতাও ওল্টানো হয়নি। টেবিলে সেই নতুন বইগুলো আছে। নেই শুধু আফরিন। আর বই পড়া হবে না কোনো দিন। গতকাল শনিবার বিকেল চারটার দিকে সীতাকুণ্ড পৌর সদরের উত্তর বাইপাস এলাকায় একটি ব্যক্তিগত গাড়ির (কার) ধাক্কায় গুরুতর আহত হয় আফরিন আক্তার। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে হাসপাতালে মারা যায় শিশুটি। আফরিন আক্তার উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের রহমতের পাড়ার বাসিন্দা নজরুল ইসলামের মেয়ে।
সে বাঁশবাড়িয়া এলাকার আয়েশা আইডিয়াল একাডেমির দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী ছিল। ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য সাহাবউদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, মায়ের সঙ্গে সীতাকুণ্ড পৌর সদরে এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যায় আফরিন। হঠাৎ একটি ব্যক্তিগত গাড়ি তাকে ধাক্কা দেয়। আহত অবস্থায় তাকে সীতাকুণ্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার মৃত্যু হয়। সীতাকুণ্ড সদর ট্রাফিক বিভাগের সার্জেন্ট মো. আল আমিন প্রথম আলোকে বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সংস্কারকাজের জন্য ঢাকামুখী লেন বন্ধ ছিল। ফলে চট্টগ্রামমুখী লেনে গাড়ির চাপ ছিল বেশি। গাড়িটি বন্ধ লেনে গিয়ে শিশুটিকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়।

0 comments:

Post a Comment