Last update
Loading...

দুঃসাহসিক ভিডিও: তরুণের মৃত্যু নিয়ে চীনে বিতর্ক

দুঃসাহসিক ভিডিও করতে গিয়ে এক চীনা তরুণের মৃত্যু নিয়ে শুরু হয়েছে অনুসন্ধান। এ নিয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে চলছে তর্কবিতর্ক। তার মৃত্যুর জন্য হুওশান ইন্টারনেট প্ল্যাটফর্ম এবং এর দর্শকদের দায়ী করা হচ্ছে। খবর বিবিসির। সম্প্রতি উ ইয়ংনিং নামে ওই তরুণ ৬২ তলা ভবন থেকে পড়ে গিয়ে মারা যান। চীনে ইন্টারনেট ভিডিও তৈরি করে অর্থ উপার্জন করেন তরুণরা। ‘জ্যান্ত মাছ খাওয়া’, ‘কাঁচা ডিম গিলে ফেলা’, ‘নগ্ন নৃত্য’ বা ‘আকাশছোঁয়া উঁচু ভবনে ঝুলে থাকার মতো দুঃসাহসিক কাজের ভিডিও প্রচার করে তারা অর্থ আয় করেন। দেশটির ভিডিওশিল্পে এখন শত শত কোটি ডলার বিনিয়োগ হচ্ছে।
এ অবস্থায় উ ইয়ংনিংয়ের মৃত্যু নিয়ে এখন প্রশ্ন উঠছে- হুওশানের মতো ইন্টারনেট প্ল্যাটফর্ম এবং এর দর্শকরাও কি এ মৃত্যুর জন্য কোনোভাবে দায়ী নয়? খবরে বলা হয়েছে, কোনো যন্ত্রপাতি ছাড়াই চীনের চাংশা শহরে ৬২ তলা ভবনে উঠেছিল উ ইয়ংনিং। এই ভিডিও তিনি ইন্টারনেটে ছাড়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। এমন কাজ তিনি আগেও করেছেন। কিন্তু এবার ৬২ তলা ভবন থেকে পড়ে গিয়ে মারা যান তিনি। বেইজিংয়ের একটি সংবাদমাধ্যম অনুসন্ধান করে জানিয়েছে, ৫০০টিরও বেশি ছোট ভিডিও এবং ‘লাইভ স্ট্রিম হুওশান নামে একটি ওয়েবসাইটে ছেড়েছিলেন উ ইয়ংনিং, যা থেকে তিনি আয় করেন সাড়ে পাঁচ লাখ ইউয়ান বা প্রায় ৮৩ হাজার মার্কিন ডলার। হুওশানে তার ‘ফ্যান’ ছিল ১০ লাখের মতো। হুওশান অবশ্য বলছে, তারা কখনই উ ইয়ংনিংকে বিপজ্জনক কাজের উৎসাহ দেয়নি।

0 comments:

Post a Comment