Last update
Loading...

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১২ এনজিওর কার্যক্রম বন্ধ

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের নেপথ্যে কতিপয় নিবন্ধনহীন এনজিও উৎসাহ জুগিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। যে কারণে সরকার বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে ওইসব এনজিওকে দায়ী করে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তাদের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান জানান, রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশসহ বিভিন্ন অনৈতিক কারণে রোহিঙ্গা ক্যাম্পভিত্তিক ১২টি এনজিও’র সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত তথ্যে জানা গেছে, সরকারের সামনে বড় সংকট হিসেবে দেখা দিয়েছে রোহিঙ্গা সমস্যা। মিয়ানমার সরকারের দমন-নিপীড়নের কারণে প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা এ দেশে প্রবেশ করে উখিয়া-টেকনাফের ১২টি অস্থায়ী ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিকতায় বাংলাদেশ সরকার রোহিঙ্গাদের আশ্রয় ও ভরণপোষণের ব্যবস্থা করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ সরকারের পাশাপাশি কক্সাবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে বিভিন্ন এনজিও কার্যক্রম পরিচালনা করছে। একইভাবে সংশ্লিষ্ট গোয়েন্দা শাখা ও সংস্থাগুলোর রেজিস্ট্রেশন গ্রহণ সংক্রান্ত কোনো তথ্য-উপাত্ত পায়নি। যে কারণে ১২টি এনজিও’র কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করেছে প্রশাসন। বুধবার এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসে পৌঁছেছে। নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়েছে সাফ্জ, কালব, ওফকা, জাগরণ, এমপিডিআর, মানবাধিকার, শেড ওয়াশ, টাই বিডি, এসআরপিবি, গ্রামীণ ব্যাংক, লাচুন ও শিলাফ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব সনজীদা শারমিন স্বাক্ষরিত এ আদেশ ২৯ নভেম্বর থেকে কার্যকর হয়। এ সংক্রান্ত অনুলিপি বাংলাদেশ সচিবালয়, জেলা প্রশাসক কক্সবাজার, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর একান্ত সচিব ও সুরক্ষা বিভাগের একান্ত সচিবকে জানানো হয়েছে।

0 comments:

Post a Comment