Last update
Loading...

পাসের হার ও জিপিএ-৫ দুটিই কমেছে

দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০১৭ সালের জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। পাসের হার ৮৮ দশমিক ৩৮ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২০ হাজার ৬২ জন। গতকাল শনিবার বেলা আড়াইটায় দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. তোফাজ্জুর রহমান তাঁর কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ফল ঘোষণা করেন। গত বারের চেয়ে এবার পাসের হার ও জিপিএ-৫ পাওয়া ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা উভয়ই কমেছে। গতবার পাসের হার ছিল ৯২ দশমিক ৯৯ শতাংশ এবং জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২৭ হাজার ৮৯।
দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০১৭ সালের জেএসসি পরীক্ষায় ২ লাখ ২৮ হাজার ৩৪৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ২ লাখ ১ হাজার ৮০৯ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। এর মধ্যে ছাত্র ৯৭ হাজার ৬৪৯ জন ও ছাত্রী ১ লাখ ৪ হাজার ১৬০ জন। পাসের হার ৮৮ দশমিক ৩৮ শতাংশ। ফলাফলে এবারও ছাত্রদের তুলনায় ছাত্রীরা সামান্য এগিয়ে রয়েছে। ছাত্রদের পাসের হার ৮৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ ও ছাত্রীদের পাসের হার ৮৮ দশমিক ৮৭ শতাংশ। ফলাফলে গতবারের চেয়ে এবার শতভাগ পাস করা বিদ্যালয়ের সংখ্যা কমেছে। এবার শতভাগ পাস করা বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৫৮০টি, যা গতবার ছিল ৮৯৯টি। অপরদিকে কেউই পাস করেনি এমন বিদ্যালয়ের সংখ্যা ১৩টি, যা গতবার ছিল ৬টি। দিনাজপুর বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. তোফাজ্জুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, বিগত বছরের তুলনায় এবার ফলাফল তেমন সন্তোষজনক নয়। ইংরেজিতে প্রশ্নপত্র কঠিন হওয়ার কারণে প্রায় ১১ হাজার শিক্ষার্থী ফেল করেছে। এ ছাড়া এবার পাসের হার ও জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা দুটিই সামান্য কমেছে। কেউ পাস করেনি এমন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

0 comments:

Post a Comment