Last update
Loading...

তিব্বতে প্রচণ্ড ভূমিকম্প, পানি ঘোলা হয়ে গেছে ব্রহ্মপুত্রের

তিব্বতে ভূমিকম্পের কারণে ভারতে ব্রহ্মপুত্র-সিয়াংয়ের পানি ঘোলা হয়ে পড়েছে বলে দাবি করল চীন। জানাল, গত মাসের ওই ভূমিকম্পে তৈরি হওয়া তিনটি হ্রদ ও ইয়ারলুং সাংপো নদীর পানির তথ্য তারা নিয়মিত জানাবে। তিব্বতের ওই সাংপো ভারতে অরুণাচল প্রদেশে ঢুকে নাম পেয়েছে সিয়াং এবং আসামে ব্রহ্মপুত্র। সম্প্রতি সিয়াং-ব্রহ্মপুত্রের পানি কাদামাটি ও অন্যান্য দূষণকারী মারাত্মকভাবে বেড়ে যাওয়ায় তা নিয়ে গভীর উদ্বেগ তৈরি হয়েছে উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্য দু’টিতে। ভূমিকম্পের কারণে এমনটা হয়ে থাকতে পারে বলে কেন্দ্রীয় সরকার জানালেও রাজ্য দু’টি তাতে সন্তুষ্ট হতে পারেনি। এর কারণ জানতে চীনের সঙ্গে যোগাযোগ করারও দাবি জানানো হয়। গত ২২ ডিসেম্বর জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে চিনের ‘স্টেট কাউন্সিলর’ ইয়াং জিয়েচির যে সীমান্ত বৈঠক হয় সেখানে এই প্রসঙ্গে কথা হয়। এ বারে মুখ খুলল চীন সরকার। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বক্তব্য, গত মাসে তিব্বতে বড় ভূমিকম্প হয়েছে। রিখটার স্কেলে মাত্রা ছিল ৬.৪।
এর জেরে বিশাল তিনটি হ্রদ সৃষ্টি হয়েছে। এগুলির কোনটি কত বড়— তার পুরো মাপজোক এখনো হয়নি। কিন্তু আশঙ্কার বিষয় হলো, পানির চাপে যদি ওই তিন হ্রদ একসঙ্গে জুড়ে যায়, কিংবা সেগুলির পাড় ভেঙে তার জল আচমকা সাংপো দিয়ে বয়ে নামে, তবে বিপদ হবে ভারতে। জলোচ্ছাসে সিংয়া ও ব্রহ্মপুত্রের দু’ধারে বিস্তীর্ণ জনবসতির বিপুল ক্ষতি হতে পারে। ফলে ওই তিন হ্রদ ও সাংপোর হাল হকিকত নিয়মিত জানাটা ভারতের পক্ষে খুবই জরুরি। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনিং মঙ্গলবার বেইজিংয়ে বলেন, ‘‘ভারত ও চীনের মধ্যে তথ্য বিনিময়ের বর্তমান যে কাঠামো রয়েছে, তার মাধ্যমেই দু’দেশের মধ্য দিয়ে বয়ে চলা নদীগুলির তথ্য জানাব আমরা।’’ ভারতে অনেকের অভিযোগ, চীনে নির্বিচার নির্মাণকাজের কারণেই সিয়াং-ব্রহ্মপুত্রের পানি এমন ঘোলা ও দূষিত হয়ে পড়েছে। এমন অভিযোগও ওঠে যে, জিনজিয়াং প্রদেশে নদীর পানি পাঠাতে সুদীর্ঘ সুড়ঙ্গ খুঁড়ছে বিইজিং। এ তারই ফল। চীনা মুখপাত্র হুয়া এ দিন সেই অভিযোগ উড়িয়ে বলেন, ‘‘হ্রদগুলি প্রকৃতিক কারণেই তৈরি হয়েছে। এগুলি আদৌ মানুষের তৈরি নয়। ভারতেও সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রের বিশেষজ্ঞেরাও এ কথাই জানিয়েছেন। উপগ্রহ-ক্যামেরাতেও ধরা পড়েছে বিষয়টি। আমরা আশা করব ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ভিত্তিহীন জল্পনা প্রচার করা থেকে বিরত থাকবে।’’

0 comments:

Post a Comment