Last update
Loading...

অভিযোগকারীদের বিরুদ্ধে কমিশন গঠনের প্রতিবেদন ১১ ফেব্রুয়ারি

পদ্মা সেতুর কথিত দুর্নীতির অভিযোগকারীদের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠনের বিষয়ে ১১ ফেব্রুয়ারি প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রোববার বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল তাপস কুমার বিশ্বাস ও টাইটাস হিল্লোল রেমা। এর আগে হাইকোর্টর নিদের্শে ৯ নভেম্বর তদন্ত কমিশনের সদস্য হিসেবে পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের উপ প্রকল্প পরিচালক মো. কামরুজ্জামানের নামের প্রস্তাব পেশ করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি প্রকৃত ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজে বের করতে 'ইনকোয়ারি অ্যাক্ট ১৯৬৫ (৩ ধারা)' অনুসারে তদন্ত কমিটি বা কমিশন গঠনের কেন নির্দেশ দেয়া হবে না এবং দোষীদের কেন বিচারের মুখোমুখি করা হবে না- তা জানতে চেয়ে স্বতঃপ্রণোদিত রুল জারি করেন হাইকোর্ট। দুই সপ্তাহের মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ, স্বরাষ্ট্র, আইন ও যোগাযোগ সচিব এবং দুদকের চেয়ারম্যানকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়। হাইকোর্টের আদেশ অনুযায়ী, এ কমিটি বা কমিশন গঠনের বিষয়ে কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে তা ৩০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে নির্দেশ দেয়া হয়। পরবর্তীতে কয়েক দফা সময়ের আবেদন জানায় রাষ্ট্রপক্ষ।

0 comments:

Post a Comment