Last update
Loading...

হামাসের হুঁশিয়ারি

পূর্ব জেরুসালেমকে বাদ দিয়ে আবু দিস শহরকে ফিলিস্তিনের রাজধানী করার যে তথাকথিত ডিল অব দ্য সেঞ্চুরি বা শতাব্দী চুক্তির পরিকল্পনা করছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, তার বিরুদ্ধে হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলনের নেতা ও গাজার সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল হানিয়া। তিনি জানিয়েছেন, ফিলিস্তিনি নেতাদের কাছে আবু দিসকে রাজধানী করার প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার গাজা উপত্যকায় গোত্রীয় নেতাদের সাথে বৈঠকে তিনি এ কথা জানান। হানিয়া বলেছেন, ফিলিস্তিনি সরকারের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রশাসন একটি প্রস্তাবে বলেছে, ভবিষ্যৎ ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রের রাজধানী হতে পারে আবু দিস। ওই খান থেকে পূর্ব জেরুসালেমের আল-আকসা মসজিদে আসার জন্য একটি সেতু নির্মাণ করা হবে। এই প্রস্তাবের মধ্যে পশ্চিমতীরকে তিন ভাগে বিভক্ত করা এবং গাজা উপত্যকায় একটি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল প্রতিষ্ঠার কথা বলা হয়েছে।
পুরনো জেরুসালেম শহরের কাছাকাছি একটি গ্রাম আবু দিস, যার অবস্থান জেরুসালেমের দক্ষিণ-পূর্ব অঞ্চল এবং জর্দান উপত্যকার পূর্ব দিকে। এর আগে গত ৩ ডিসেম্বর নিই ইয়র্ক টাইমসের খবরে বলা হয়েছিল, সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমান ফিলিস্তিনের ভবিষ্যৎ রাজধানী হিসেবে আবু দিসের নাম প্রস্তাব করেন। ইসমাইল হানিয়া বলেছেন, ‘এই পরিকল্পনার মধ্যে আল-আকসা মসজিদের মূল ফটকের সাথে যোগাযোগ রক্ষার জন্য একটি ব্রিজ নির্মাণের কথাও রয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘এই প্রস্তাবের মধ্যে আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণকে তিনটি ভাগ হওয়ার কথা রয়েছে। গত ৬ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার পর এই বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। হানিয়া বলেন, কয়েকটি আঞ্চলিক শক্তি চায় পশ্চিম তীরকে তিন ভাগে বিভক্ত করতে। সেই সাথে গাজায় স্বায়ত্তশাসিত একটি রাজনৈতিক সত্তা প্রতিষ্ঠা করতে চায় তারা। মধ্যপ্রাচ্য সম্পর্কিত এখনো প্রকাশ না হওয়া যুক্তরাষ্ট্রের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কাজ করার বিরুদ্ধে স্থানীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়দের সতর্ক করে দেন হানিয়া। তিনি বলেন, জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী করার মার্কিন সিদ্ধান্তে নতুন ঝুঁকি রয়েছে। এতে ফিলিস্তিন ও জর্দানের মধ্যে সম্পর্কের ধরণ পাল্ট যেতে পারে। ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনি জনগণকে ইন্তিফাদা চালিয়ে যাওয়ারও আহ্বান জানান তিনি।

0 comments:

Post a Comment