Last update
Loading...

তরুণীকে রাস্তায় পুড়িয়ে মারল প্রেমিক

২২ বছর বয়সী তরুণী সন্ধ্যা রানীকে পুড়িয়ে মারলেন তার সাবেক সহকর্মী যুবক। ঘটনাটি বৃহস্পতিবারের ভারতের হায়দ্রাবাদে। এ ঘটনায় ঘাতক ওই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রাজ্যের সেকেন্দারাবাদ এলাকার রাস্তায় সন্ধ্যার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেন কার্তিক। শুক্রবার সকালে হাসপাতালে মৃত্যু হয় সন্ধ্যার। খবর বিবিসির। সন্ধ্যা রানী সেকেন্দারাবাদের একটি প্রতিষ্ঠানে অভ্যর্থনাকর্মীর দায়িত্ব পালন করতেন। বৃহস্পতিবার পৌনে ৭টার দিকে রোজকার মতো বাসায় ফিরছিলেন তিনি।
পথে মোটরসাইকেলে এসে তার গতিরোধ করেন পুরনো সহকর্মী কার্তিক। দুই বছর আগে একসঙ্গে কাজ করতেন তারা। সন্ধ্যার সঙ্গে তার উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হতে থাকে। একপর্যায়ে কার্তিক বোতলে করে আনা কেরোসিন ঢেলে সন্ধ্যার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন। কেউ দেখার আগেই পালিয়ে যান তিনি। এনডিটিভি জানায়, পুলিশ বলছে, আগুনে পুড়তে পুড়তে চিৎকার করতে থাকেন সন্ধ্যা। এ সময় পথচারীরা গিয়ে আগুন নেভান। তবে ততক্ষণে সন্ধ্যার শরীরের ৬০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। পরে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। পুলিশ জানায়, তদন্তে জানা গেছে অতীতে দু’জনের মধ্যে ভালো সম্পর্ক ছিল। এক বছর ধরে চাকরি ছিল না কার্তিকের। তিনি প্রচুর মদ্যপান করতেন। কয়েক মাস ধরে সন্ধ্যাকে উত্ত্যক্ত করছিলেন। চাকরি ছেড়ে তাকে বিয়ে করার জন্য চাপ দিচ্ছিলেন। রাজি না হওয়ায় সন্ধ্যার সঙ্গে তার নিয়মিত ঝগড়াও চলছিল।

0 comments:

Post a Comment