Last update
Loading...

ডাক্তার না হয়েও অপারেশন দুঃখজনক: হাইকোর্ট

ডাক্তার না হয়েও অপারেশন খুবই দুঃখজনক এবং এ ঘটনা কসাইয়ের মত আচরন।  পটুয়াখালীর বাউফল নিরাময় হাসপাতালে রোগীর পেটে গজ রেখে সেলাইয়ের অপরাধে রাজন দাসসহ চারজনের বিরুদ্ধে রায় দেয়ার সময় এমন মন্তব্য করেছেন আদালত। সন্তান প্রসবের সময় এক নারীর পেটে গজ রেখে অপারেশন শেষ করায় কথিত চিকিৎসক রাজন দাস ওরফে অর্জুন চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ৬ নভেম্বর বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হক সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টর বেঞ্চ গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। সোমবার রাজন দাস হাইকোর্টে হাজিরা দিতে আসলে তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেন আদালত এবং নিরাময় হাসপাতালের মালিক, মেডিকেল সহকারী ও নার্সের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেয়া হয়। এ বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী ১৩ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত। এই ঘটনায় আদালত বলেন, ডাক্তার না হয়েও অপারেশন। মানুষের কি কোন দাম নেই। খুবই দুঃখজনক ঘটনা। ক্লিনিকটি টি চিকিৎসালয় না কসাইখানা? কসাইয়ের মত আচরণ এগুলো। কোন যুগে বাস করছি। এটাতো হত্যার মত। গত মার্চে পটুয়াখালীর বাউফলে নিরাময় ডায়াগনেস্টিক সেন্টারের প্রসব ব্যথা নিয়ে ভর্তি হন মাকসুদা নামের এক নারী। সেখানে কথিত ডাক্তার রাজন দাস পেটে গজ রেখেই অপারেশন সম্পন্ন করেন। ১২ জুলাই আবার অপারেশন করে সেই গজ বের করা হয়।

0 comments:

Post a Comment