Last update
Loading...

পাকিস্তানি গুলিতে ভারতের ৪ সেনা নিহত

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মির সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ রেখায় পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে ভারতের চার সেনা নিহত হয়েছে। এর মধ্যে একজন কর্মকর্তা রয়েছেন। ভারতীয় সেনাবাহিনী শনিবার এক বিবৃতিতে এ কথা বলেছে। খবর এপির। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শনিবার দিনের শুরুর দিকে রাজৌরি সেক্টরে এ ঘটনা ঘটে। বিবৃতিতে ভারতীয় সেনাবাহিনী দাবি করেছে, পাকিস্তানি সেনারা ইচ্ছাকৃতভাবে গোলাগুলি শুরু করে। এদিকে, জম্মু-কাশ্মির পুলিশের মহাপরিচালক শেষ পাল ভাইদ জানিয়েছেন, পাকিস্তানি সেনা ও গেরিলারা এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। তবে পাকিস্তান তাৎক্ষণিকভাবে এ সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করেনি। নয়াদিল্লি প্রায় নিয়মিতভাবে অভিযোগ করে আসছে যে, পাকিস্তান অস্ত্র ও প্রশিক্ষণ দিচ্ছে কাশ্মিরি গেরিলাদেরকে। পাশাপাশি গেরিলাদেরকে সীমান্ত পেরিয়ে গিয়ে ভারতীয় সেনাদের ওপর হামলার সুযোগ করে দেয়। পাকিস্তান এসব অভিযোগ জোরালো ভাষায় নাকচ করে থাকে। দেশটি বলছে, ভারতই বরং জম্মু-কাশ্মিরে ‘যুদ্ধাপরাধ’ ঘটাচ্ছে এবং পাকিস্তানে সন্ত্রাসী পাঠাচ্ছে।
‘কাশ্মির সংকট একমাত্র আলোচনার মাধ্যমেই নিষ্পত্তি হতে পারে’
ভারতের প্রধান গোয়েন্দা সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস বা 'র'এর সাবেক প্রধান অমরজিৎ সিং দৌলত বলেছেন, কাশ্মির সংকট একমাত্র আলোচনার মাধ্যমেই নিষ্পত্তি হবে পারে। গত অক্টোবরে লন্ডন স্কুল অব ইকনমিক্স বা এলএসই'র দক্ষিণ এশিয়া ফোরাম আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনা না করার যে কৌশল ভারত নিয়েছে তার কোনো অর্থ নেই বলেও উল্লেখ করেন। গত পনর মাসে কাশ্মিরের পরিস্থিতি ভারত মারাত্মক ভাবে খারাপ করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বল প্রয়োগ করে কাশ্মিরে কখনোই কোনো সুফল পাওয়া যায়নি। আসলে এ ভাবে কোথাও কখনোই সুফল পাওয়া যায়নি এবং বর্তমানে স্পেনে তা দেখতে পাচ্ছি বলে উল্লেখ করেন তিনি। এদিকে, একই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধান গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার-সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্স বা আইএসআইয়ের সাবেক প্রধান এসাহনুল হক। তিনি বলেন, গত জুলাই থেকে কাশ্মির পরিস্থিতি অবনতির দিকে মোড় নিয়েছে। তিনি আরো বলেন, নির্বিচারের ছররা গুলি ব্যবহার করে এবং দমন-পীড়ন চালিয়ে কাশ্মিরে বিক্ষোভ সামাল দিয়েছে ভারত।

0 comments:

Post a Comment