Last update
Loading...

দোহারে এখন শান্তির সুবাতাস বইছে

সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং দোহার-নবাবগঞ্জের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম বলেছেন, দোহারের মানুষ এখন শান্তি ও নিরাপদে জীবন কাটাচ্ছেন। আগে যেখানে চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, খুন ও মাদক ব্যবসা হতো সেখানে আজ শান্তির সুবাতাস বইছে। শুক্রবার দোহারের বিভিন্ন ইউনিয়নে শীতবস্ত্র বিতরণকালে তিনি বলেন, আমি চাই দোহারের সাধারণ মানুষ সব সময় শান্তিতে থাকুক। অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম আরও বলেন, দোহার ও নবাবগঞ্জের অধিকাংশ গ্রামে বর্তমান সরকারের আমলে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। তিনি বলেন, ঢাকা-১ আসনের এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর আমি দোহার ও নবাবগঞ্জকে শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় আনার চেষ্টা করেছি। কারণ আপনারা ভালো থাকলে আমি ভালো থাকব। আপনাদের সুখের কথা ভেবে আমি কাজ করার চেষ্টা করছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেমন মানুষের কথা চিন্তা করে দেশকে উন্নয়ন করছে। আমি তাকে অনুসরণ করে দোহারের উন্নয়নের চেষ্টা করছি। পদ্মার করাল গ্রাস থেকে দোহারবাসীকে রক্ষা করতে আমি সব সময় চিন্তা করি। প্রধানমন্ত্রী আমার কথা শুনেছেন। তাই তাকে ধন্যবাদ জানাই। তার সহযোগিতায় পদ্মা ভাঙন রোধে ২১৭ কোটি টাকার প্রকল্প পাস হয়েছে। এ প্রকল্পের কাজ এখনও চলছে।
এছাড়া শিক্ষার উন্নয়ন, রাস্তাঘাট নির্মাণ ও প্রশস্তকরণে কাজ করে আসছি। সালমা ইসলাম বলেন, দরিদ্র কৃষক যাতে শীতে কষ্ট না পায় সেজন্য তাদের পাশে আমাদের দাঁড়াতে হবে। সাধ্য অনুযায়ী তাদের সহায়তা করতে হবে। সবার সহযোগিতা ও পরামর্শ পেলে আমি আপনাদের জন্য আরও কাজ করতে পারব ইনশাআল্লাহ। আগামী দিনে আমি সবার পাশে থেকে কাজ করতে চাই। আমি শুধু এমপি নই, দোহার-নবাবগঞ্জের সাধারণ মানুষের বন্ধু ও বোন হয়ে থাকতে চাই। অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি তার নিজস্ব অর্থায়নে প্রতিটি ইউনিয়নে প্রায় ১ হাজার করে কম্বল বিতরণ করেন। শুক্রবার দোহারের মুকসুদপুর, নারিশা, সুতারপাড়া, দোহার পৌরসভা জয়পাড়া কলেজ ও বিলাশপুর ইউনিয়নে নারী-পুরুষের মাঝে পাঁচ হাজারের অধিক কম্বল বিতরণ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দোহার থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রজ্জব আলী মোল্লা, বিলাশপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন মোল্লা, মুকসুদপুর ইউপির এমএ হান্নান, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা খন্দকার নুরুল আনোয়ার বেলাল, ঢাকা জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, জাহাঙ্গীর চোকদার, আসাদুজ্জামান চৌধুরী রানা, দোহার জাতীয় পার্টি নেতা ডা. আলাউদ্দিন আল আজাদ, আবদুল আলীম, হায়দার বেপারি, বশির আহমেদ, লোকমান হোসেন, ডা. হাকিম, শহীদুল ইসলাম, মোতালেব হোসেন, যুব সংহতি নেতা নাজিম আহমেদ, জসীমউদ্দিন পান্নু, ফরিদ হোসেন, রাশেদ খন্দকার, শামীম হোসেন, মো. শহীদ, ছাত্র সমাজের রাজিব খান, মনির হোসেন, মাহবুব প্রমুখ। গত তিন দিনে নবাবগঞ্জের ১৪টি ইউনিয়নে প্রায় ১৫ হাজার কম্বল বিতরণ করেন অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম।

0 comments:

Post a Comment