Last update
Loading...

পায়ের পর ঠোঁট বিতর্কে প্রিয়াঙ্কা

তারকা হওয়ার কিছু সুবিধা যেমন আছে, তেমনি যন্ত্রণারও শেষ নেই। এই যন্ত্রণাই এখন হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। এই বলিউড তারকা মাস খানেক আগে পা দেখিয়ে বিতর্কে জড়িয়ে ছিলেন। জার্মানির রাজধানী বার্লিনে তখন নিজের প্রথম হলিউডি ছবি ‘বেওয়াচ’-এর প্রচারে গিয়েছিলেন তিনি। এ সময় আবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও রাষ্ট্রীয় সফরে বার্লিনে ছিলেন। বিদেশে গিয়ে নিজ দেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পেয়ে তা হাতছাড়া করতে চাননি প্রিয়াঙ্কা। এ পর্যন্ত ঠিকই ছিল। ‘ভুল’ তিনি করেছিলেন মোদির সামনে খাটো পোশাকে হাজির হয়ে। পোশাকটিতে প্রিয়াঙ্কার পায়ের বেশির ভাগ অংশই ছিল অনাবৃত। এ জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভারতীয় অনেক জনতার তোপের মুখে পড়েছিলেন তিনি। এবার প্যারিসে গিয়ে পড়লেন ঠোঁট বিতর্কে।
প্যারিস ফ্যাশন উইকে অংশ নিতে সাবেক এই বিশ্বসুন্দরী এখন ফ্রান্সে অবস্থান করছেন। সেখান থেকে ইনস্টাগ্রামে নিজের একটি সেলফি প্রকাশ করেছেন সম্প্রতি। এরপর কমেন্ট বক্সে শুরু হয় মানুষের ‘সমালোচনা বর্ষণ’। কেউ বলেন, ‘প্রিয়াঙ্কা প্লাস্টিক সার্জারি করিয়েছেন।’ কেউ আবার তার ফিরতি মন্তব্যে লেখেন, ‘তবে প্লাস্টিক সার্জারি খুব বাজে হয়েছে।’ প্রিয়াঙ্কার ঠোঁট মাছের মতো দেখতে লাগছে বলেও অনেকে হাসাহাসি করেন।
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া শেষবার অনাবৃত পা প্রদর্শনের বিতর্কটি খুব কৌশলে সামলে ছিলেন। নিন্দুকদের কথার সরাসরি কোনো জবাব দেননি। ইনস্টাগ্রামে নিজের পা আরও বেশি প্রদর্শন করে অন্য আরেকটি ছবি প্রকাশ করেছিলেন এ অভিনেত্রী। ছবিতে তাঁর মা মধু চোপড়াও ছিলেন খাটো পোশাকে। ছবিটির ক্যাপশন প্রিয়াঙ্কা দিয়েছিলেন, ‘Legs for days...’
অবশ্য প্রিয়াঙ্কার মা মধু চোপড়া অনেক দিন পর হলেও সম্প্রতি এ বিষয়ে মুখ খুলেছেন। মধু বলেন, ‘প্রিয়াঙ্কা সেদিন হুট করেই নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পায়। পোশাক পাল্টানোর মতো সময় তখন তার ছিল না। মোদির সঙ্গে দেখা করাই তখন তাঁর কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিল।’
এবার নতুন বিতর্কের জবাব প্রিয়াঙ্কা কতটা সৃজনশীলভাবে দেন, সেটাই দেখার পালা। সূত্র: দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

0 comments:

Post a Comment