Last update
Loading...

রংপুর সিটি মেয়রের ওপর হামলায় মানববন্ধন

সিটি মেয়র বীরমুক্তিযোদ্ধা সরফুদ্দীন আহম্মেদ ঝন্টুর ওপর হামলার প্রতিবাদে বুধবার নগরীতে দাবী আদায়ে মানববন্ধন হয়েছে। এসময় সিটি মেয়র অভিযোগ করেছেন আগামী নির্বাচন থেকে বিরত রাখতেই তার ওপর হামলা হয়েছে। হামলাকারী জেএমবি অথবা জঙ্গি সদস্য হতে পারে। রংপুর থেকে সরকার মাজহারুল মান্নানের প্রতিবেদন। রোববার আসরের নামাজের পর নিজ বাড়ির সামনে একটি ফার্নিচারের দোকানে গল্পরত মেয়রের ওপর হামলা চালায় সাদ্দাম নামের এক যুবক। উপস্থিত লোকজন তাকে আটক করে পুলিশে দেয়। এ ঘটনার পর প্রথম আন্দোলনে যায় সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। একারনে সোম ও মঙ্গলবার করপোরেশনে কোন কাজ হয় নি। বুধবার এ ঘটনার প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠে রংপুর। শাপলা চত্বর থেকে সিটি করপোরেশন গেট পর্যন্ত মানববন্ধনে অংশ নেন হাজার হাজার মানুষ। তারা এ ঘটনার পেছনের কারন ও  কারা জড়িত তা জনসমুখে প্রকাশের দাবি জানান। এসময় সিটি মেয়র ছাড়াও কাউন্সিলরসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা বক্তব্য রাখেন। তারা  ঘটনার মাস্টারমাইন্ডদের সনাক্ত না করায় আশংকা প্রকাশ করেন কাউন্সিলরার। এদিকে মানববন্ধনে অংশ নিয়ে অংশগ্রহনকারীদের সাথে হাত মেলান মেয়র। এসময় আবেগঘন বক্তৃতায় বলেন,  মেরে ফেলার জন্যই হামলা চালানো হয়েছিল। হামলাকারী যুবক জঙ্গি অথবা জেএমবি সদস্য হতে পারে। নির্বাচন থেকে দুরে রাখতেই এই হামলা করা হয়েছে। কারন ৭ ফুট দুর থেকে আমার বুকে লাথি মারা হয়েছে। আমি পড়ে গেলে আমাকে মেরে ফেলতো। হামলার ঘটনায় মেয়রের একান্ত সচিব বাদী হয়ে মামলা করেন। পুলিশ আদালতের মাধ্যমে আটক যুবককে ৫ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। তবে এখনও কোন ক্লু উদ্ধার হয় নি।

0 comments:

Post a Comment