Last update
Loading...

মুসলিম নারীর বোরকা খুলে নেয়ায়...

ব্যস্ত এক শপিং সেন্টারে শক্তি প্রয়োগ করে একজন মুসলিম নারীর বোরকা খুলে নিয়েছিলেন পিটার স্কুটার (৫৬)। তিনি ওপর এতটাই শক্তি প্রয়োগ করেছিলেন যে ওই নারী ঘটনার সময় মেঝেতে পড়ে যান। পাশাপাশি পিটার স্কুটার তখন ওই নারী ও মুসলিমদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর বিচারে যায়। শেষ পর্যন্ত এ অপরাধের জন্য পিটারকে ১৫ মাসের জেল দেয়া হয়েছে। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন মিরর। এতে বলা হয় পিটার স্কুটারের বাড়ি ইংল্যান্ডের সান্দারল্যান্ডে। সম্প্রতি তিনি ব্রিজেস শপিং সেন্টারে যান। সেখানে একজন মুসলিম নারীকে দেখতে পান বোরকা পরা অবস্থায়। ওই নারীর সঙ্গে তখন ছিল তার ৯ বছর বয়সী একটি ছেলে। বোরকা পরা দেখেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন পিটার। তিনি চিৎকার করে বলতে থাকেন, তোমরা এখনও আমাদের এই দেশে আছো। তোমরা স্টুপিড মুসলিম। এই বলে জোর করে ওই নারীর বোরকা খুলে নিতে থাকেন তিনি। এ সময় বেশ ধস্তাধস্তি হয়। ফলে ওই নারী শপিং সেন্টারের মেঝেতে পড়ে যান। তার বোরকা খুলে নেন পিটার। তখনও তার মুখ দিয়ে আপত্তিকর শব্দ বেরিয়ে আসতে থাকে। তিনি আপত্তিকর শব্দ ব্যবহার করে বলতে থাকেন, ওটা খুলে নাও। আমি আমার দেশকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে নিয়ে যাবো। এটা আমাদের বৃটেন। আমাদের নিয়ম মেনে চলো। এর পর যে শব্দ তিনি ব্যবহার করেছেন তা এখানে প্রকাশযোগ্য নয়। তারপর পিটার বলেন, আমি সব সময়ই এসব বোরকা খুলে নেবো। এ বিষয়ে মামলা ওঠে নিউক্যাসল ক্রাউন কোর্টে। ঘটনাটি কয়েক মাস আগে ঘটলেও তা প্রকাশ পেয়েছে এখন। কারণ, মামলাটি এতদিন মুলতবি ছিল। পিটার অসুস্থ। তার মুখে ক্যান্সার। হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। এ জন্য বিলম্বিত হয় বিচার কাজ। বিচারে পিচারকে ১৫ মাসের জেল দেয়া হয়েছে। কিন্তু নির্যাতিত নারী যখন জানতে পেরেছেন পিটারের মুখে ক্যান্সার তখন তিনি মুখ খুলেছেন। বলেছেন, এমন অসুস্থ ব্যক্তি চিকিৎসা নিচ্ছেন। তার আমি জেল চাই না।

0 comments:

Post a Comment