Last update
Loading...

যমুনা ফিউচার পার্কসহ বিনোদন কেন্দ্রে এখনও ভিড়

ঈদের ছুটি শেষ হলেও বিনোদন কেন্দ্রগুলো ছিল দর্শনার্থীদের ভিড়ে টইটম্বুর। মিরপুর চিড়িয়াখানা, শিশুপার্কের মতো বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে সপরিবারে হাজির হন রাজধানীবাসী।  এছাড়া ঈদ আনন্দকে রোমাঞ্চকর করে তুলতে দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ শপিংমল যমুনা ফিউচার পার্কের থিম পার্ক, ব্লকবাস্টার সিনেমাসেও ভিড় ছিল। শুক্রবার রাজধানীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোয় এ চিত্র দেখা গেছে। সরেজমিন যমুনা ফিউচার পার্ক ঘুরে দেখা গেছে, সকাল থেকে বিনোদনপ্রেমীরা পরিবার-পরিজন নিয়ে যমুনা ফিউচার পার্কে প্রবেশ করতে শুরু করেন। এ দিন রোমাঞ্চপ্রিয়দের জন্য সকাল ১১টা থেকে কার্নিভাল খোলা রাখা হয়। বিকালের দিকে ভিড় আরও বাড়ে। প্রথম দর্শনার্থীরা কার্নিভালের রোলার কোস্টার, স্কাই ড্রপ, পাইরেট শিপ, ফোর শিপ, ম্যাজিক উইন্ডমিল, ফ্লাইং ডিসকো ও টাওয়ার চ্যালেঞ্জার রাইড উপভোগ করেন। পরে ক্লান্তি দূর করতে শপিংমলে ঘোরেন প্রিয়জনদের নিয়ে। আর বাচ্চাদের নিয়ে মা-বাবারা চলে যান ফিউচার ওয়ার্ল্ডে। এখানকার সুপার সুইং রাইড, বাম্পার কার, ড্রাংকার বক্সিংয়ের মতো রাইডগুলো বাচ্চাদের ঈদ আনন্দ বাড়িয়ে দিয়েছে কয়েকগুণ। অনেকে আবার ব্লকবাস্টার সিনেমাসে মুভি দেখেন। যমুনা গ্রুপের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (থিম পার্কের প্রধান পরিচালক কর্মকর্তা) লিটন হোসেন সিকদার বলেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর থিম পার্কে বিনোদনপ্রেমীদের ভিড় বেশি ছিল।
ঈদের ছুটি শেষে আজ (শুক্রবার) প্রথম সাপ্তাহিক ছুটি হওয়ায় অনেক দর্শনার্থী কার্নিভালে আসেন এর রোমাঞ্চকর সব রাইড উপভোগ করতে। উত্তরা থেকে কার্নিভালে ঘুরে আসা বেসরকারি চাকরিজীবী মঈনুল হাসান বলেন, ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে গিয়েছিলাম। পরে ফিরেই অফিস করতে হয়েছে। তাই ঢাকায় ঈদের ছুটি কাটানো হয়নি। এ কারণে আজ সাপ্তাহিক ছুটি পাওয়ায় পরিবার নিয়ে ঘুরতে এসেছি। তিনি আরও বলেন, ঘুরতে এসে মনে হল রাজধানীতে এখনও ঈদের আমেজ কাটেনি। বিশেষ করে তরুণ-তরুণীদের মাঝে। সবাই নতুন জামা-কাপড় পরে ঘুরতে বেরিয়েছেন। দেখে ভালো লাগছে। শাহবাগের শিশুপার্কে দর্শনার্থীদের লম্বা লাইন ধরে প্রবেশ করতে দেখা গেছে। সব শ্রেণী-পেশার মানুষের পদচারণায় শিশুপার্ক ছিল কানায় কানায় পূর্ণ। একই অবস্থা ছিল মিরপুরের চিড়িয়াখানা, বলধা গার্ডেন, রমনা পার্ক, টিএসসি, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানেও।

0 comments:

Post a Comment