Last update
Loading...

কাশ্মিরে গেরিলারা রণকৌশল পরিবর্তন করছে: স্থায়ী ঘাঁটি গাড়ছে শ্রীনগরে

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে গেরিলারা তাদের রণকৌশল পরিবর্তন করছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গোয়েন্দা সূত্রের তথ্যের বরাত দিয়ে আজ(সোমবার) ভারতের সংবাদ মাধ্যম খবর দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, সশস্ত্র গেরিলারা নিজেদের এলাকায় ফিরতে শুরু করেছে বলে গোপন সূত্রের খবর থেকে জানা যাচ্ছে।
কাশ্মিরের গ্রীষ্মকালীন রাজধানী শ্রীনগরে অন্তত  ৫ গেরিলা ফিরে এসেছে বলে গোয়েন্দা সূত্রের খবরের ভিত্তিতে এ ধারণার সৃষ্টি হয়েছে। এর আগে এ সব গেরিলা দক্ষিণ কাশ্মির থেকে দূরে তৎপরতা চালিয়েছে।
পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, গত এক সপ্তাহ ধরে গেরিলাদের অনিয়মিত চলাফেরা নজরে তাদের এসেছে। এতে করে শ্রীনগরের লালবাজার, বাটামালো এবং লাল চকে ঘেরাও এবং তল্লাসি অপারেশন চালানো হয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পদস্থ কর্মকর্তা বলেন, কাশ্মিরের অন্যান্য এলাকায় যে ভাবে গেরিলা তৎপরতা বেড়েছে একই ভাবে শ্রীনগরেও তা বাড়ানোর পরিষ্কার চেষ্টা চলছে।
শনিবারে সড়ক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গেরিলাদের হামলায় ভারতীয় কেন্দ্রীয় আধা সামরিক বাহিনী সিআরপিএফের এক জওয়ান নিহত হয়। এ ছাড়া, শ্রীনগর-জম্মু মহাসড়কে একটি স্কুল ভবনে আটকে পড়া গেরিলাদের সঙ্গে প্রায় দু’দিনব্যাপী গুলি বিনিময়ে দু’গেরিলা নিহত এবং ভারতীয় তিন সেনা আহত হয়।
অবশ্য সর্বশেষ এ ঘটনার সঙ্গে গোয়েন্দা তথ্যের কোনো যোগসূত্র আছে কিনা সে বিষয়ে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। চলতি মাসের ১৭ তারিখের গোয়েন্দা তথ্যে শ্রীনগরের গেরিলাদের চলাচলের ওপর তথ্য দেয়া হয়েছিল। এতে বলা হয়েছে, শ্রীনগরের অধিবাসী গেরিলাদেরকে তাদের নিজ নগরীতে ফিরতে এবং সেখান থেকে তৎপরতা চালানোর জন্য গেরিলা গোষ্ঠীগুলো থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
গত দশকে গেরিলারা শ্রীনগরের বাইরে থেকে তৎপরতা চালিয়েছে। এবারে তাদের শ্রীনগরের কেন্দ্রস্থলে ফিরে আসার ঘটনায় নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান।
হিজবুল মুজাহেদিনের জনপ্রিয় কমান্ডার বুরহান ওয়ানির প্রথম মৃত্যু বার্ষিকীতে গেরিলা হামলা হতে পারে নিরাপত্তা বাহিনীর একাধিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন। ৮ জুলাই ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন ওয়ানি।
পাশাপাশি শ্রীনগরে গেরিলাদের স্থায়ী ঘাঁটি করার বিষয় নিয়ে উদ্বেগে রয়েছে ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনী। তারা মনে করছেন, জম্মু ও কাশ্মিরের গেরিলা তৎপরতা নতুন একটি পর্যায়ে প্রবেশ করছে।

0 comments:

Post a Comment