Last update
Loading...

জর্জিয়ায় ট্রাম্পের অগ্নিপরীক্ষা

দীর্ঘ ৩৮ বছর পর রিপাবলিকানদের হাতছাড়া হতে চলেছে আসনটি, এক আসনেই ব্যয় ৫ কোটি ৬০ লাখ ডলার যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য জর্জিয়ার ৬ষ্ঠ ডিস্ট্রিক্ট কংগ্রেসনাল আসনের নির্বাচন মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। কয়েক দশক ধরে রিপাবলিকান দলের দখলে থাকা কংগ্রেসের এ আসনটিতে এবার ডেমোক্রেটিক দল জয়ী হতে যাচ্ছে বলে জনমত জরিপে আভাস মিলেছে। নির্বাচনে মুখোমুখি হয়েছেন ডেমোক্রেটিক প্রার্থী জন অসফ ও রিপাবলিকান প্রার্থী ক্যারেন হ্যান্ডেল। কার্যত এ নির্বাচনের প্রার্থী হলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও অসফ। কারণ এ নির্বাচনকে ট্রাম্পের জন্য জনপ্রিয়তা যাছাইয়ের মাধ্যম হিসেবে মনে করা হচ্ছে। নির্বাচনের শেষ মুহূর্তের এক জরিপ বলছে, অসফ ৭ পয়েন্টে এগিয়ে রয়েছেন। তবে রিপাবলিকানদের বিশ্বাস, ১৯৭৯ সাল থেকে দখলে রাখা এ আসনে এবারও তারা জয় পাবে। খবর বিবিসি ও সিএনএনের। জর্জিয়ার এ আসনের নির্বাচন সবচেয়ে ব্যয়বহুল নির্বাচন। এক আসনে ব্যয় হচ্ছে প্রায় ৫ কোটি ৬০ লাখ ডলার। যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস নির্বাচনের ইতিহাসেও সবচেয়ে ব্যয়বহুল নির্বাচন এটি। কংগ্রেস সদস্য টম প্রাইস ট্রাম্পের মন্ত্রিসভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে যোগ দেয়ার ফলে এ আসনটি শূন্য হয়। রিপাবলিকানদের জন্য অত্যন্ত নিরাপদ হিসেবে বিবেচিত এ আসনে প্রাইস প্রায় ২০ শতাংশ ভোটে জিতেছিলেন। প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের চার মাস পেরিয়ে যাওয়ার পর এ আসন হাতবদলের জোরালো সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। ডেমোক্র্যাটরা আশা করছে, জর্জিয়ার এ বিশেষ নির্বাচন থেকেই শুরু হবে তাদের ২০১৮ সালের মধ্যবর্তী নির্বাচনে কংগ্রেসের নিয়ন্ত্রণ ছিনিয়ে নেয়ার প্রচারণা। ১৮ এপ্রিল এ আসনে প্রথম দফা নির্বাচনে প্রামাণ্যচিত্র পরিচালক ৩০ বছর বয়সী অসফ ১৬ জন প্রার্থীকে ডিঙিয়ে সবচেয়ে বেশি ভোট পান। তবে প্রয়োজনীয় ৫০ শতাংশ ভোট পেতে ব্যর্থ হন তিনি। এতে এখন দ্বিতীয় দফা ভোটে তাকে জর্জিয়ার সাবেক সেক্রেটারি অব স্টেট হ্যান্ডেলের বিরুদ্ধে লড়তে হচ্ছে। এ নির্বাচনের মাধ্যমে ট্রাম্পের জনপ্রিয়তার রেটিংয়ে ধস নামানের চেষ্টা করছে ডেমোক্র্যাটরা। ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান উভয় দলই আসনটি দখলের লক্ষ্যে রেকর্ড পরিমাণ অর্থ ঢেলেছে। ট্রাম্পকে হারাতে অসফের পক্ষে প্রোগ্রেসিভ পৌরড প্রায় ২ কোটি ৩০ লাখ ডলার খরচ করছে। সোমবার নির্বাচনী প্রচারণায় অফস বলেন, ‘এটি তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটি নির্বাচন। রিপাবলিকান দলের আসন রক্ষার লড়াই এটি। পাশাপাশি এটি ডেমোক্র্যাটদের সামনে এগিয়ে যাওয়ার নির্বাচন।’ এদিন হ্যান্ডেলও ডিস্ট্রিক্টজুড়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন। মঙ্গলবার ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় তাকে সাহস জুগিয়েছেন। ট্রাম্প টুইটারে লেখেন, ‘কংগ্রেসের জন্য ক্যারেন হ্যান্ডেল। স্বল্প কর, উত্তম স্বাস্থ্যসেবা এবং নিরাপত্তার জন্য লড়াই করছেন তিনি। কঠোর পরিশ্রমী হ্যান্ডেল ছেড়ে দেয়ার পাত্র নন। আজ ভোট।’ পরবর্তীতে আরেক টুইট বার্তায় ট্রাম্প লেখেন, ‘জর্জিয়ায় নিরাপত্তা ও সন্ত্রাসবাদ নিয়ন্ত্রণে দুর্বল অসফ।’ এ সময় অসফকে আক্রমণও করেন তিনি। ট্রাম্প তাকে ডিস্ট্রিক্ট ছেড়ে চলে যাওয়ার হুমকি দেন। ডেমোক্র্যাটরা আশা করছেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্প যেভাবে তার সমর্থন হারাচ্ছেন, এতে ডেমোক্র্যাটদের পক্ষে দেশজুড়ে একটি সমর্থনের ঢেউ জাগছে। গ্যালপের করা সর্বশেষ জরিপে ট্রাম্পকে সমর্থন করে এমন মার্কিনি রয়েছেন ৩৮ শতাংশ। তাকে সমর্থন করেন না এর পরিমাণ ৫৮ শতাংশ।

0 comments:

Post a Comment