Last update
Loading...

প্রাপ্তি আর আক্ষেপ নিয়ে মাশরাফিদের ফেরা

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে প্রথমবারের মতো সেমিফাইনালে ওঠার গৌরব নিয়ে ফেরা। সবার মুখে চওড়া হাসিই ছিল প্রত্যাশিত। কিন্তু সেটা আর দেখা গেল কই। এত বড় সাফল্যের পরও সবার চোখে-মুখে হতাশার ছায়া, স্বপ্নভঙ্গ হওয়ার প্রতিচ্ছবি। প্রায় ১৮ ঘণ্টার বিমান যাত্রার ক্লান্তি কিছুটা ছিল। সেটা তো দেশে ফেরার পরই উড়ে যাওয়ার কথা। আসলে দু’দিনেও ভারতের বিপক্ষে বড় হারের কষ্টটা ভুলতে পারেনি টাইগাররা। টানা তিনটি আইসিসি টুর্নামেন্টে ভারতের বিপক্ষে হেরেই বাংলাদেশের পথচলা থেমেছে। ২০১৫ বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে, ২০১৬ সালে টি ২০ বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বে, এবার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে। তবুও এবারই বাংলাদেশ সেরা সাফল্য নিয়ে কাল দেশে ফিরেছে। ২৬ এপ্রিল ইংল্যান্ডের উদ্দেশে দেশ ছেড়েছিল বাংলাদেশ দল। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ, তার আগে সাসেক্সে অনুশীলন ক্যাম্প, পরে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি- সব মিলিয়ে ৫০ দিনের সফর শেষে শনিবার সকালে ঢাকায় এসে পৌঁছায় বাংলাদেশ দল। মৃদু হাসিতে প্রাণ না থাকলেও অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা, দলের সবারই ভালো লাগছে। বিমানবন্দরে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই ভালো লাগছে। সেমিফাইনালে খেলা অনেক বড় ব্যাপার। তবে খারাপ লাগাও আছে। যেহেতু একটা ভালো সুযোগ পেয়েছিলাম, কিন্তু পারিনি। এখানেই শেষ নয়। সামনে আরও বড় টুর্নামেন্ট বা সিরিজ আছে। সেগুলোয় ভালো করাটা এখন গুরুত্বপূর্ণ।’ বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জটা শুরু হয়েছিল আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে। আয়ারল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সব ম্যাচ হেরে গেলে ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজেরও নিচে নেমে যেতে হতো টাইগারদের। কিন্তু আয়াাল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশ উঠে যায় ছয় নম্বরে। খেলেছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে। আইসিসির কোনো টুর্নামেন্টে এটাই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সাফল্য। প্রথমবারের মতো দেশের বাইরে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ডকে। জিম্বাবুয়ের বাইরে এই প্রথম কোনো দেশের বিপক্ষে জয়ের সংখ্যা গেছে দুই অঙ্কে। দলীয় অর্জনের সঙ্গে আছে ব্যক্তিগত কিছু অর্জনও। সেঞ্চুরি করেছেন তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ। এ টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের তরুণরা মোটেই ভালো করতে পারেননি। মাশরাফিও জানালেন এ টুর্নামেন্ট তরুণদের জন্য সহজ ছিল না। তিনি বলেন, ‘তরুণদের জন্য এসব টুর্নামেন্ট সহজ নয়। তাদের আরও উন্নতি করতে হবে। হয়তো প্রত্যাশা অনুযায়ী তারা ভালো খেলেনি। তবে ওদের ভালো ভবিষ্যৎ আছে।’
ইংল্যান্ডেই ২০১৯ বিশ্বকাপে এসব তরুণ ভালো করবে বলে মনে করছেন মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘২০১৯ বিশ্বকাপে তারা আরও দায়িত্ব নিয়ে খেলতে পারবে। দুই বছর পর আরও পরিণত হবে। এখন উন্নতির সময়। যে পর্যায়ে তারা খেলেছে, এটা যদি গুরুত্বের সঙ্গে নিতে পারে, ২০১৯ বিশ্বকাপে আরও ভালো খেলতে পারবে।’ বিশ্বকাপের চেয়েও প্রতিদ্বন্দ্বিতার ক্ষেত্রে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি কঠিন বলে মনে করছেন মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপ তো বিশ্বকাপই। তবে প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিচারে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ভীষণ কঠিন। ওখানে গ্রুপপর্ব পেরনোই অনেক কঠিন। সেই জায়গায় আমরা সেমিফাইনাল খেলেছি। সেই হিসেবে আমি দুই বছর আগের (২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল) অর্জনের চেয়ে এবারের সাফল্যকে এগিয়ে রাখব।’ ভারতের বিপক্ষে সেমিফাইনালে হারের পর সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বারবার খেলোয়াড়দের মানসিকভাবে শক্তিশালী হওয়ার কথা বলেছেন। দেশে ফেরার পরও বললেন একই কথা, ‘আমাদের আত্মবিশ্বাসের জায়গাটা আরও বাড়াতে হবে। একইসঙ্গে মানসিকভাবে শক্তিশালী হতে হবে। বড় ম্যাচে কীভাবে নিজেদের মেলে ধরতে হয়, সেই জায়গায় উন্নতি করতে হবে আরও।’ ইংল্যান্ডে যাওয়ার সময় বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট ছিল ৯৩। এখন টাইগারদের পয়েন্ট ৯৪। রয়েছে র‌্যাংকিংয়ে ছয় নম্বরে। বাংলাদেশের চেয়ে অনেক পিছিয়ে নয় নম্বরে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ (৭৭)। স্বাগতিক ইংল্যান্ড এবং র‌্যাংকিংয়ের সেরা অন্য সাত দল সরাসরি খেলবে ২০১৯ বিশ্বকাপে। সে হিসেবে মাশরাফিদের সরাসরি বিশ্বকাপে খেলা অনেকটাই নিশ্চিত। আপাতত কিছুদিন বিশ্রামের সুযোগ পাচ্ছেন সাকিব আল হাসান-তামিম ইকবালরা। তবে এরই মধ্যে চূড়ান্ত হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ সফর। আগস্টের শুরু থেকে হয়তো দুই ম্যাচের সেই সিরিজের প্রস্তুতি শুরু করবে বাংলাদেশের টেস্ট দল। অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশে আসবে ১৮ আগস্ট। আপাতত কিছুদিন ওয়ানডে ম্যাচ থেকে দূরে থাকবে বাংলাদেশ।

0 comments:

Post a Comment