Last update
Loading...

পুলিশে সোপর্দের পর ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মো. সেলিম মিয়া (৩২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। সে সরাইল উপজেলার মালিহাতা গ্রামের মো. তাজুল ইসলামের ছেলে। সোমবার ভোররাতে উপজেলার বেড়তলা এলাকায় এ ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়। পুলিশের দাবি, নিহত সেলিম ডাকাত দলের সদস্য। তাকে নিয়ে সহযোগীদের খোঁজে অভিযানে গেলে ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ সে মারা যায়। সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রূপক কুমার সাহা জানান, সোমবার ভোর রাতে বেড়তলা এলাকার লোকজন সেলিমকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে ডাকাত সেলিমকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। পরে তার দেয়া তথ্যমতে তাকে নিয়ে বেড়তলা এলাকায় সেলিমের সঙ্গীদের ধরতে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ পাল্টা গুলি ছোড়ে। ওসির দাবি, এসময় সহযোগীদের ছোড়া গুলিতে ঘটনাস্থলেই সেলিম নিহত হন। ঘটনাস্থল থেকে দু’টি পাইপগান, আট রাউন্ড খালি কার্তুজ, দুই রাউন্ড তাজা কার্তুজ, একটি গ্রিল কাটার ও চারটি বর্শা উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ। তবে সেলিমের সহযোগী কাউকে আটক করা যায়নি। ওসি জানান, নিহত সেলিমের বিরুদ্ধে ডাকাতি, চুরি ও ছিনতাইয়ের অভিযোগে জেলার বিভিন্ন থানায় আটটি মামলা রয়েছে।

0 comments:

Post a Comment