Last update
Loading...

ফিক্সিং করে ফাইনালে পাকিস্তান!

আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শুরুতে কেউ হয়ত ভাবতেই পারেনি ফাইনালে পৌঁছাবে পাকিস্তান। কারণ অভিজ্ঞদের বিদায়ের পর বলা যায়, তরুণ দল নিয়ে মাঠে নেমেছিল তারা। হাসান আলী, ফখর জামানের মতো সেই তরুণরাই ফাইনালে তুলে এনেছে পাকিস্তানকে। বিস্ময় জাগিয়েছে ক্রিকেটবিশ্বে। তবে পাকিস্তানের এই বিশাল সাফল্যকে পাতানো কেলেঙ্কারির কালিমা লাগিয়েছেন দেশটির সাবেক ক্রিকেটার আমির সোহেল। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে এখন পর্যন্ত চার ম্যাচের তিনটিতে জিতেছে পাকিস্তান। প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে হারার পর বিস্ময়করভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে দলটি। দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কার মতো দলকে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে। এরপর টুর্নামেন্টের সবচেয়ে ফেভারিট ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নেয় পাকিস্তান। তবে এই সাফল্যকে আমির সোহেল দেখছেন,
পাতানো ম্যাচের সুবিধার ফল হিসেবে। পাকিস্তানি এক টিভি চ্যানেলে আমির সোহেল বলেন, 'সরফরাজকে কারো বলা উচিত, তোমরা মহৎ কিছু করেছ ভেবো না। বাইরের কেউ তোমাদের এ জয় পাইয়ে দিয়েছে। সরফরাজের এত খুশি হওয়ার কারণ নেই। আমরা সবাই জানি, পর্দার আড়ালে কী হয়! কে আসলে তাদের এ ম্যাচ জিতিয়েছে, সেটা বিস্তারিত বলতে চাই না। যদি কেউ জিজ্ঞেসও করে বলব সমর্থকদের দোয়ায় আর আল্লাহর ইচ্ছায় ম্যাচগুলো জিতেছে। যারা কারসাজি করছে, তাদের নাম নেবো না। মাঠের খেলায় না, বাইরের হস্তক্ষেপে এখানে এসেছ। ছেলেদের এখন মাথা ঠিক রাখা উচিত!' ম্যাচ ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়ানো পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের জন্য নতুন কিছু নয়। তবে এবার জেতা ম্যাচে প্রশ্ন তুলে সবাইকে অবাক করে দিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক এই ওপেনার।

0 comments:

Post a Comment