Last update
Loading...

এবার গোরক্ষকদের মারধরের শিকার সরকারী কর্মীরা, ট্রাকে আগুন

ভারতের বিজেপিশাসিত রাজস্থানে পুনরায় গো-রক্ষকদের তাণ্ডব প্রকাশ্যে এসেছে। কথিত গো-রক্ষকরা গরু বোঝাই ট্রাক আটকে চালককে মারধর, ট্রাকে ভাঙচুর করাসহ তাতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। হামলাকারীদের হাত থেকে রেহাই পাননি তামিলনাড়ুর সরকারি কর্মকর্তারাও। এর আগে রাজস্থানের আলওয়ারে পহেলু খান নামে এক দুধ ব্যবসায়ীকে গরু পাচারের মিথ্যা অভিযোগে গণপিটুনিতে হত্যা করেছিল গো-রক্ষকরা। আজ মঙ্গলবার ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশ, রোববার গভীর রাতে তামিলনাডু প্রাণীসম্পদ বিকাশ দপ্তরের কয়েকজন কর্মকর্তা রাজস্থানের জয়সালমীর থেকে ৫০টি গরু এবং ৩০টি বাছুর কিনে ট্রাকে করে নিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় তথাকথিত গোরক্ষকরা ১৫ নম্বর জাতীয় সড়কে তাদের আটকায় এবং ট্রাক চালকদের মারধর করে। উন্মত্ত জনতা একটি ট্রাকে আগুন ধরিয়ে দিলে পরে পুলিশি প্রচেষ্টায় তা নিভিয়ে ফেলা হয়। তামিলনাডুর সরকারি কর্মী ও কর্মকর্তারা জয়সালমীরের বিভিন্ন জায়গা থেকে উন্নত প্রজাতির গরু কিনে প্রাণীসম্পদ বিকাশ দপ্তরের জন্য নিয়ে যাচ্ছিলেন। এনওসি বা আপত্তিহীন শংসাপত্র ছাড়াও তাদের কাছে গরু অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এমনকি স্থানীয় থানার অনুমতিপত্রও ছিল। ট্রাকের সামনে ‘অন ডিউটি-গভর্নমেন্ট অব তামিলনাড়ু’ লেখা থাকলেও কোনো কিছুকে আমল দেয়নি দুর্বৃত্তরা।
কথিত গো-রক্ষকদের হামলার মুখে পড়তে হয় তাদের। গরু পাচার করা হচ্ছে গুজব তুলে ওই তাণ্ডব চালানো হয়। সোমবার সকালে হামলাকারী ৪ দুর্বৃত্তকে পুলিশ গ্রেফতারসহ কমপক্ষে ৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। বাড়মের পুলিশের এসপি গগনদীপ সিংহলা বলেন, সঠিক সময়ে পদক্ষেপ না নেয়ার জন্য এক কর্মকর্তাসহ ৭ পুলিশকর্মীকে অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়েছে। কয়েক মাস আগে রাজস্থানেরই আলওয়ার জাতীয় সড়কে পশুমেলা থেকে বৈধভাবে গরু কিনে নিয়ে যাওয়ার সময় গো-রক্ষকদের হাতে চরমভাবে নিগৃহীত হন পহেলু খান নামে এক ব্যক্তি। তাকে গরু পাচারের গুজব তুলে পিটিয়ে হত্যা করে উন্মত্ত জনতা। এবার সরকারি কর্মীরাও রেহাই পেলেন না গো-রক্ষক নামধারী ধর্মান্ধদের হাতে। দেশের বিভিন্ন অংশে গো-রক্ষকদের দুর্বৃত্তপনা প্রকাশ্যে আসলেও বিজেপিশাসিত রাজস্থান সরকারের গাছাড়া মনোভাব ও প্রকারান্তরে প্রশ্রয়ের ফলে গো-রক্ষকদের বাড়বাড়ন্ত চলছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

0 comments:

Post a Comment