Last update
Loading...

রুট পরিবর্তন করায় নিরাপত্তা দেয়া যায়নিঃ ওসি রাঙ্গুনিয়া

রাঙ্গুনিয়ায় বিএনপির গাড়িবহরে হামলার ঘটনা রুট পরিবর্তনের কারণেই হয়েছে বলে জানিয়েছেন রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ মো. আহসানুল কাদের ভূইয়া। তিনি বলেন, রাঙ্গামাটি যাওয়ার রুট পরিবর্তন করায় বিএনপি মহাসচিবের গাড়িবহরকে নিরাপত্তা দেয়া যায়নি। ওসি বলেন, চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি সড়ক দিয়ে গাড়ি বহরটি যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু গাড়িবহরটি কাপ্তাই সড়ক দিয়ে রাঙ্গামাটির উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। এজন্য আইনশৃংখলা বাহিনী তাদের নিরাপত্তা দিতে পারেনি। রাঙ্গামাটিতে পাহাড় ধসে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রাণ বিতরণে যাওয়ার পথে রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার ইছাখালী বাজারে বিএনপির মহাসচিবের গাড়িবহরে হামলা হয়। এতে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ছয় নেতা আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। মহাসচিব ছাড়া আহতরা হলেন- স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) রুহুল আলম চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম, বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. ফাওয়াজ হোসেন শুভ ও চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম।
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, প্রায় ২০-২৫ জন লোক অতর্কিতে গাড়িবহরে লাঠিসোঁটা, রামদাসহ হামলা করে। আমার গাড়ির কাচ ভেঙে গেছে। গাড়ি তছনছ করা হয়েছে। গাড়ির ভাঙা কাচ আমার শরীরে এসে লেগেছে। আমিসহ আমাদের কয়েকজন নেতা আহত হয়েছেন। জেলা বিএপির যুগ্ম আহবায়ক অধ্যাপক মো. মহসীন বলেন, চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি সড়কের রাঙ্গুনিয়ার রানিরহাটে প্রথমে বিএনপি মহাসচিবের গাড়িবহরটি বাধা পায়। পরে তারা বিকল্প পথে কাপ্তাই সড়ক দিয়ে রাঙ্গামাটি যাওয়ার পথে ইছাখালীতে হামলার শিকার হন। তিনি বলেন, সরকারদলীয় দুর্বৃত্তরা বিএনপির গাড়িবহরে হামলা করেছে। এ হামলার কারণে রাঙ্গামাটির সফর স্থগিত করে মহাসচিবের গাড়িবহর চট্টগ্রাম ফেরত গেছে। স্থানীয় ব্যবসায়ী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, চট্টগ্রাম-কাপ্তাই সড়ক হয়ে ৪টি গাড়ি রাঙ্গামাটির দিকে যাচ্ছিলো। এসময় ইছাখালী হাসপাতালের সামনে হঠাৎ ২৫/৩০ জন দুর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সড়কে অবস্থান নিয়ে গাড়িগুলোর গতিরোধ করে। এক পর্যায়ে কিছু বুঝে উঠার আগেই তারা গাড়ি বহরে হামলা ও ভাংচুর করে দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে গাড়িগুলো রাঙ্গামাটির দিকে অগ্রসর না হয়ে চট্টগ্রামের দিকে ফেরত যায়।

0 comments:

Post a Comment