Last update
Loading...

চাহিদার ৯৮ ভাগের বেশি ওষুধ স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত হচ্ছে : সংসদে নাসিম

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম সংসদকে জানিয়েছেন, সরকারের উদারতা ও আন্তরিকতার ফলে দেশের ওষুধ শিল্প অন্যতম সেক্টরে পরিণত হয়েছে। দেশীয় চাহিদার শতকরা ৯৮ ভাগেরও বেশি ওষুধ বর্তমানে স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত হচ্ছে। এমনকি বর্তমানে দেশে উৎপাদিত বিভিন্ন প্রকার ওষুধ ও ওষুধের কাঁচামাল বিশ্বের ১২৭টি দেশে রফতানি হচ্ছে। এ ওষুধ রফতানির পরিমাণ ও দেশের জনসংখ্যা দিনদিন বাড়ছে। আজ মঙ্গলবার স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদের ১৬তম অধিবেশনে জাসদের বেগম লুতফা তাহেরের এক প্রশ্নের লিখিত জবাবে মন্ত্রী সংসদকে এ তথ্য জানান। মন্ত্রী জানান, জনস্বাস্থ্যের নিরাপত্তার স্বার্থে ভেজাল ও নিম্নমানের ওষুধ বিক্রয় ও উৎপাদনকারী ফার্মেসি ও ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানির বিরুদ্ধে সরকারের ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর ও অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সর্বদাই সচেষ্ট রয়েছে এবং সরকার এ ব্যাপারে কঠোরতা অবলম্বন করছে। গতবছরের জানুয়ারি থেকে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে ভেজাল ও নকল ওষুধ উৎপাদন ও বিক্রির দায়ে বিভিন্ন ফার্মেসি ও ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানির বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতে ২৭৭৫টি মামলা দায়ের করে ৭ কোটি ৪৩ লাখ ৬ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। ৬৬ জন আসামকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।
১৮ কোটি টাকার ওষুধ জব্দ ও ধ্বংস করা হয়েছে। একই একই সাথে এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ড্রাগকোর্টে ৪৭টি ও ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে ৬৬টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মন্ত্রী জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থার জিএমপি গাইডলাইন যথাযথভাবে অনুসরণ না করায় এবং ভেজাল ও নিম্নমানের ওষুধ উৎপাদনের দায়ে এ পর্যন্ত ৮৬টি ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স সাময়িক বাতিল ও ১৯টির লাইসেন্স স্থায়ীভাবে বাতিল করা হয়েছে। একই সময়ে নিম্নমানের ওষুধ উৎপাদনের কারণে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৬১টি পদের রেজিস্ট্রেশন বাতিল এবং ১৪টি পদের রেজিস্ট্রেশন সাময়িক বাতিল করাসহ প্রতিষ্ঠানগুলোর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। জাপার সেলিম উদ্দিনের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম জানান, হিমোফিলিয়া ফাউন্ডেশনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশে প্রায় ৩০০০ হিমোফিলিয়া রোগী আছে। এ রোগের চিকিৎসা অত্যন্ত ব্যয়বহুল। দেশের সকল সরকারি হাসপাতাল হিমোফিলিয়া রোগীদের প্রাথমিক চিকিৎসা সুবিধা রয়েছে।

0 comments:

Post a Comment