Last update
Loading...

অপহরণের ৬ মাস পর চোখ বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার

লক্ষ্মীপুর শহরের পুরাতন আদালত এলাকায় থেকে অপহৃত রাকিবুল হাসান রকির খোঁজ মিলেছে ৬ মাস পর। রবিবার ভোর রাতের দিকে লক্ষ্মীপুর-ঢাকা মহাসড়কের বাগবাড়ী এলাকায় রাস্তার পাশে চোখ বাঁধা অবস্থায় রকিকে ফেলে রেখে যায় দূর্বত্তরা। পরে স্থানীয় লোকজন রাস্তার পাশে চোখ বাঁধা অবস্থায় তাকে পড়ে থাকতে দেখে তাঁর বাবা তোফায়েল আহমদকে খবর দেন। খবর পেয়ে রকির পরিবারের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে নিজ বাসায় নিয়ে যায়। রাকিবুল হাসান রকি জানান, অপহররে পর থেকে হাত-পা ও চোখ বাঁধা অবস্থায় একটি ছোট্ট ঘরে ফেলে রাখা হয়েছিল তাকে। গত ৬ মাস ৬দিন এ ভাবে রাখা হয়েছিল তাকে। চোখ বাঁধা অবস্থায় তাঁকে খাবার-দাবারও দেয়া হতো।
কোথায় রাখা হয়েছে এবং কারা নিয়ে গেছে সেটা বলতে পারছে না রাকিবুল হাসান রকি। তবে তাকে কোন নির্যাতন করা হয়নি বলেও জানান তিনি। রকিকে জীবিত পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্টমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান তার বাবা-মা। লক্ষ্মীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. লোকমান হোসেন জানান, রাকিবুল হাসান রকি ফিরে আসার ব্যাপারে এখনও তিনি কিছুই জানেন না। তবে এ বিষয়ে খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৬ ডিসেম্বর রাতে লক্ষ্মীপুর শহরের পুরাতন আদালত এলাকায় রাকিবুল হাসান রকি ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট খেলছিলেন। এ সময় কয়েকজন যুবক তাকে অপহরন করে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় রাকিবুল হাসান রকির বাবা পরের দিন সকালে লক্ষ্মীপুর সদর থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন। রাকিবুল হাসান রকি স্থানীয় একটি মোটরসাইকেল শো-রুমে মার্কেটিংয়ে কাজ করতেন। তবে আইনশৃংখলা বাহিনী তাকে তুলে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ ছিল।

0 comments:

Post a Comment