Last update
Loading...

মাবিয়াকে নিয়ে আশা-হতাশা

গৌহাটি এসএ গেমসের পর অনেকটাই নিষ্প্রভ দেশের অন্যতম সেরা ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার সীমান্ত। নিজের রেকর্ড নিজে ভাঙলেও পদকের দেখা পাননি। সর্বশেষ গত ডিসেম্বরে কাতারে স্বর্ণপদক জিতেছিলেন। এরপর দুটি আন্তর্জাতিক গেমসে বাজে ফল। যার পরিপ্রেক্ষিতে এশিয়ান ইনডোর অ্যান্ড মার্শাল আর্ট গেমস থেকে বাদ পড়েছেন মাবিয়া। সুযোগ দেয়া হচ্ছে নতুনদের। তবে ওই গেমসে ৬৩ কেজিতে বাংলাদেশ অংশ নিচ্ছে না বলেই বাদ পড়েছেন তিনি। যদিও এ নিয়ে ক্ষোভ ঝেড়েছেন মবিয়া, ‘আসলে আমাকে আর আন্তর্জাতিক আসরে পাঠাতে চাইছেন না ফেডারেশনের কর্মকর্তারা।’ এসএ গেমসে সোনা জেতার পর মাবিয়াকে নিয়ে প্রত্যাশা বেড়েছিল বহুগুণ। এই ভারোত্তোলক গত বছর ডিসেম্বরে কাতারে অনুষ্ঠিত একটি টুর্নামেন্টেও স্বর্ণপদক জেতেন। তাকে নিয়ে আরও আশাবাদী হন ফেডারেশনের কর্তারা। কিন্তু অবাক হলেও সত্যি যে, গৌহাটির চেয়েও বেশি ভার তুলেও পদক পাননি মাবিয়া। এসএ গেমসে ১৪৯ কেজি ওজন তুলেই সোনা পেয়েছিলেন। পরে জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে তুলেছিলেন ১৭২। নিজের রেকর্ড নিজেই ভাঙেন। তবে আন্তর্জাতিক আসরে আরও উন্নতি করলেও খালি হাতেই ফিরতে হয়েছে তাকে। তুর্কমেনিস্তানে এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ১৭৪ কেজি তুলেও ১২ জনের মধ্যে হয়েছেন দশম। ১৭৯ কেজি তুলে সেই রেকর্ড ভাঙেন বাকুর ইসলামিক সলিডারিটি গেমসে।
১৭৮ কেজি ওজন তোলেন। স্ন্যাচে ৭৭ এবং ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১০১। এটাই তার ক্যারিয়ারসেরা স্কোর। কিন্তু দুর্ভাগ্য তার, ছয়জনের মধ্যে ষষ্ঠতম হন মাবিয়া। এ বিষয়ে মাবিয়া বলেন, ‘যখন আপনি পারফরম্যান্সের কথা বলবেন, তখন দেখতে হবে আমি কত কেজি ওজন তুলে ছয় নম্বর হয়েছি। আমার সেরা পারফরম্যান্স দিয়েও যদি পদক জিততে না পারি, তাহলে এটা কি আমার দোষ?’ আগামী সেপ্টেম্বরে তুর্কমেনিস্তানের আশগাবাদে বসছে পঞ্চম এশিয়ান ইনডোর অ্যান্ড মার্শাল আর্ট গেমসের আসর। ৪৪ দেশের ক্রীড়াবিদের অংশগ্রহণে ওই গেমসে দু’জন ভারোত্তোলক পাঠাবে বাংলাদেশ ভারোত্তোলন ফেডারেশন। একজন নারী ও একজন পুরুষ ভারোত্তোলক। ওই আসরকে সামনে রেখে অনুশীলন চলছে ভারোত্তোলকদের। ক’দিন পরেই একটি ট্রায়ালের মাধ্যমে বেছে নেয়া হবে দু’জনকে। তবে যাচ্ছেন না মাবিয়া। জানা গেছে, দুটি আসরে পদক জিততে তিনি ব্যর্থ হওয়ায় হতাশ ফেডারেশনের কর্মকর্তারা। নতুনদের সুযোগ করে দিতে চাইছেন তারা। এ বিষয়ে মাবিয়ার কথা, ‘উনারা (কর্মকর্তারা) যদি মনে করেন, নতুনদের পাঠিয়ে ভারোত্তোলনে ভালো ফল আসবে তবে আমি তাদের সাধুবাদ জানাই।’ তিনি যোগ করেন, ‘আমি অনুশীলন চালিয়ে যাব। দেশ আমাকে যা দিয়েছে তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। নিজের পারফরম্যান্স ধরে রাখার জন্যই অনুশীলন করে যাব। ভবিষ্যতে এরচেয়ে ভালো পারফরম্যান্স আমি আপনাদের দেব।’ ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক শাহজালাল মুকুলের কথায়, ‘আসলে এশিয়ান ইনডোর অ্যান্ড মার্শাল আর্ট গেমসে বাংলাদেশ ভারোত্তোলন ডিসিপ্লিনের ৫৩ ও ৬৯ কেজি ওজন শ্রেণীতে অংশ নেবে। এখানে মাবিয়ার ৬৩ কেজি নেই। তাই মাবিয়া যাচ্ছে না। আর ওই দুটি ওজন শ্রেণীতে ট্রায়ালের মাধ্যমে ভারোত্তোলক নির্বাচন করা হবে। তাছাড়া সামনেই নেপালে এশিয়ান জুনিয়র ও ইয়ুথ ওয়েটলিফটিং চ্যাম্পিয়নশিপ রয়েছে। যেখানে মাবিয়াকে পাঠানোর পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের। তাই তার হতাশ হওয়ার কিছু নেই।’

0 comments:

Post a Comment