Last update
Loading...

আতিয়া মহলে নিহতদের মধ্যে জঙ্গি মুসা নেই

সিলেটের আতিয়া মহলে জঙ্গিবিরোধী অভিযানে নব্য জেএমবির শীর্ষ নেতা মঈনুল ইসলাম ওরফে মুসা নিহত হননি। অপারেশন টোয়াইলাইটে মুসা নিহত হয়েছে বলে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী ধারণা করেছিল। কিন্তু ডিএনএ টেস্টে তার প্রমাণ মেলেনি। তবে ডিএনএ টেস্টে ওই ভবনে নিহত নারী জঙ্গি মনজিয়ারা পারভীন তা নিশ্চিত হওয়া গেছে। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) সিলেটের অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার সারওয়ার জাহান মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সারওয়ার জাহান জানান, ‘মর্জিনা’ নামে পরিচিত এই নারী জঙ্গি সীতাকুণ্ডে নিহত নারী জঙ্গি জুবাইরা ইয়াসমীনের বোন। আতিয়া মহলের অভিযানে তিন পুরুষ ও এক নারী জঙ্গি নিহত হয়েছিলেন। ডিএনএ টেস্টে কেবল মনজিয়ারা পারভীনের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে। তিনি বলেন, এই মামলাগুলোর তেমন অগ্রগতি নেই।
আতিয়া মহলের ঘটনায় দুটি মামলার তদন্তই এখন পিবিআইর হাতে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই পরিদর্শক দেওয়ান আবুল হোসেন বর্তমানে ওমরাহ হজে রয়েছেন। তিনি দেশে ফিরলে মনজিয়ারার পরিবারকে পরিচয় শনাক্তের বিষয়টি জানানো হবে। আতিয়া মহলে নিহতদের পরিচয় শনাক্ত করতে ২৯ মার্চ সকালে মনজিয়ারার বাবা নুরুল ইসলাম ও বড় ভাই জিয়াবুল হককে সিলেট এনে তাদের লাশের ছবি ও বাসা ভাড়া নেয়ার সময় দেয়া পরিচয়পত্রের ছবি দেখানো হয়। তবে তখন তারা ছবি দেখে তাকে শনাক্ত করতে পারেননি। এজন্য পরিবারের সদস্যদের ডিএনএর নমুনা রাখা হয়। ৩০ মার্চ মুসাকে শনাক্তের জন্য রাজশাহী থেকে মুসার মা সুফিয়া বেগমকে সিলেট আনা হয়। তার ডিএনএ নমুনাও রাখা হয়। সিলেটের দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ির ভয়ংকর জঙ্গি আস্তানা আতিয়া মহলে গত ২৫ মার্চ থেকে অপারেশন টোয়াইলাইট নামে অভিযান শুরু করে সেনাবাহিনী। ১১১ ঘণ্টার অপারেশন ওই ভবন থেকে চারজনের লাশ উদ্ধার হয়।

0 comments:

Post a Comment