Last update
Loading...

মন্ত্রী-মিনিস্টার হল মিছা কথা বলার জন্য: পরিবেশমন্ত্রী

মন্ত্রীদেরও যে অসত্য কথা বলতে হয় তা স্বীকার করেছেন পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু। সচিবালয়ে বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ব পরিবেশ দিবসের কর্মসূচি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘আই অ্যাম প্রাউড, আমি যখনই যে মন্ত্রণালয়ে ছিলাম, আই হ্যাভ বিন অ্যাবল টু ওয়ার্ক উইথ এ ভেরি ব্রিলিয়ান্ট পিপল। মন্ত্রী-মিনিস্টার একজন থাকে বাবা, শুইনা রাইখো।’ কথা বলতে বলতে মন্ত্রীর চোখ পড়ে সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে চোখ বোলাতে থাকা একজন সাংবাদিকের ওপর। তাকে উদ্দেশ করে মঞ্জু বলেন, ‘ওই কাগজ পড় ক্যান তুমি? আমার কথা শোনো, ওইটা তো মিছা কথা সব।’ এরপর হেসে ওঠেন পরিবেশমন্ত্রী। পরক্ষণেই নিজেকে সামলে বলেন, ‘মন্ত্রী-মিনিস্টার হল তোমাদের কাছে মিছা কথা বলার জন্য।’ আমলাদের প্রশংসা করে পরিবেশমন্ত্রী বলেন, শুধু বাংলাদেশ না, পৃথিবীর সব দেশই চালায় আমলারা। যত ব্রিলিয়ান্ট লোক আসবে, জ্ঞানী লোক আসবে, গুণী লোক আসবে এবং তাদের চাকরি-বাকরির নিশ্চয়তা দেয়া হবে, মান-সম্মান দেয়া হবে,
সেই দেশ তত বেশি উন্নত হবে। তিনি বলেন, ‘এখানে (মন্ত্রণালয়ে) দু’জন অ্যাডিশনাল সেক্রেটারি আছেন, একজনকে তো আমি সমীহ করে কথাবার্তা বলি। কারণ আমরা তো পত্রিকার লোক, বেয়াদব। আমাদের চাইতে নলেজেবল লোক পৃথিবীতে জন্মগ্রহণ করে নাই, এটা আমাদের পজিশন। কিন্তু এ মন্ত্রণালয়ের অ্যাডিশনাল সেক্রেটারি মহসিন সাহেবকে আমি সমীহ করে কথা বলি, আমার যেন কেন মনে হয় উনি আমার চেয়ে বেশি জানেন। যদিও আমি মনে করি উনি জানেন না, কিন্তু মনে হয় বেশি জানেন।’ সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে পরিচয়পর্বে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ইসতিয়াক আহমদেরও বেশ প্রশংসা করেন মন্ত্রী। কিছু দিন আগে সুন্দরবনে আগুন লাগার প্রসঙ্গে আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেন, ‘সুন্দরবনের ঘাসে আগুন লাগছে। আমরা কি লিখেছি- সুন্দরবনের গাছে আগুন লেগেছে।’ বিশ্ব পরিবেশ দিবসের অনুষ্ঠানে উপস্থিতির জন্য প্রধানমন্ত্রী ধন্যবাদ পাওয়ার যোগ্য মন্তব্য করে মঞ্জু বলেন, ‘এটা আমি চামচাগিরি করার জন্য বলতেছি না, দালালি করার জন্যও বলতেছি না। আমার জীবনে দালালি করার প্রয়োজন আছে বলেও মনে করি না। আই হ্যাভ বিন গিভেন গড মোর দ্যান আই ডিজার্ভ।’
সূত্র: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

0 comments:

Post a Comment