Last update
Loading...

কমলগঞ্জে গ্রামবাসীর সেচ্চাশ্রমে ধলাই নদীর ঝুঁকিপূর্ন বাঁধ রক্ষার চেষ্টা

পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বার বার ঝুর্কিপুর্ন বাঁধ মেরামতের আকুতি মিনতে করলে কোন ধরনের উদ্যোগ গ্রহন না করায় অবশেষে বাঁধটি রক্ষায় এগিয়ে এসেছেন মাধবপুর ইউনিয়নের ৬টি গ্রামের লোকজন। শনিবার ১৭ জুন সকালে হিরামতির ঝুঁকিপূর্ন ১৫০ মিটার বাঁধ মেরামতে কাজ শুরু করেন শতাধিক গ্রামবাসী। নিজদের প্রচেষ্টায় বাঁধ রক্ষার খবর শুনে ছুটে আসেন মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক তোফায়েল ইসলামসহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা। সরেজমিনে দেখা যায়, হীরামতি নামক এলাকায় শতাধিক গ্রামবাসী এক সাথে বাঁধ রক্ষায় কাজ করছেন। কেউ বস্তার মধ্যে বালু ভর্তি করছেন কেউ আবার কুদাল দিয়ে মাটি কেটে দিচ্ছেন। কেউ আবার বাঁশ কেটে বাঁধের ভাঙ্গনে র্গত করে টুকাচ্ছেন। এভাবে এগিয়ে এসেছেন মাধবপুর ইউনিয়নের আশপাশের ৬টি গ্রামের লোকজন। ধলাই হীরামতি এই ঝুকি^পুর্ণ এলাকা যদি ভাঙ্গন দেখা দেয় তাহলে মাধবপুর বাজার, হীরামতি, গুকুল সিংহের গ্রাম, মাঝেরপাড়. ছয়ছিড়ি, ঝাপের ও চা বাগান এলাকা তলিয়ে যাবে।
মাধবপুর গ্রামের আসহাবুর ইসলাম জানান, গত এক বছর ধরে কমলগঞ্জের ধলাই নদীর বাঁেধর এই হীরামতি এলাকার ফুট বাঁধ এর মাটি ধসে প্রায় ফুটে দাড়িয়েছে। বার বার পানি উন্নয়নবোর্ডসহ স্থানীয় প্রশাসনকে আমরা বাঁধ মেরামেতর জন্য আবেদন নিবেদন করলেও কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি। সম্প্রতি সপ্তাহের আগে প্রবল বর্ষনে বাঁধটি আরো ছোট হয়ে মারাত্মক ঝুর্কিপুর্ণ হয়ে পড়ে। এতে এলাকাবাসী উদ্বেগ্ন হয়ে পড়েন। তারাই প্রশাসনের দিকে না তাকিয়ে বাঁধটি মেরামতের জন্য ৬ টি গ্রামের লোকজন মিটিং করে সেচ্চাশ্রমে কাজ করে বাঁধ মেরামতের সিদ্ধান্ত নেন। স্থানীয় চেয়ারম্যান ও এগিয়ে আসেন। এ কারনে শনিবার সকাল হতে গ্রামবাসী বাঁধের মেরামত কাজেনেমে পড়েন। বস্তার ভিতরে মাটি ভরে ভাঙ্গনকৃত এলাকায় ফেলার কাজ শুরু করেছেন। এদিকে গ্রামবাসীর উদ্যোগে বাঁধ মেরামতের খবর শুনে দুপুরে ছুটে আসেন মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলাম ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীসহ উধবর্তন কর্মর্কর্তারা। ইউপি চেয়ারম্যান পুস্প কুমার কানু জানান, গ্রামবাসীর এমন উদ্যোগ বিরল হয়ে থাকবে। তিনি এলাকাবাসীর পাশে রয়েছেন। জেলা প্রশাসক তোফায়েল ইসলাম ঝুর্কিপূণ এলাকায় গ্রামাবসী যে ভাবে সেচ্চাশ্রমে কাজ করে বাঁধ রক্ষার চেষ্টা করছেন তাতে সবাইকে ধন্যবাদত জানান এবং পানি উন্নয়ন র্বোড কর্মর্কতাকে দ্রুত বাঁধ রক্ষার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেন।

0 comments:

Post a Comment