Last update
Loading...

সহায়ক সরকারের বিধান কোনো দেশে নেই: ওবায়দুল

সহায়ক সরকারের বিধান কোনো গণতান্ত্রিক দেশে নেই বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বিএনপি সহায়ক সরকার নামে যে আন্দোলনের হুমকি দিচ্ছে জনগণ তাদের সঙ্গে নেই। শনিবার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড এলাকায় বিআরটিএ ও স্থানীয় প্রশাসনের পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন মন্ত্রী। অপর এক প্রশ্নের আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে মওদুদ আহমেদকে বাড়ি ছাড়তে হয়েছে, এখানে সরকারের কোনো হাত নেই। এখন তিনি আদালতের রায় মানেন না; তিনি তো আইনমন্ত্রী ছিলেন, বিএনপি ক্ষমতায় গেলে আইনের শাসন কতটুকু প্রতিষ্ঠিত হবে এতেই বুঝা যায়। ওবায়দুল কাদের বলেন, জনগণের নিকট অগ্রহণযোগ্য কোনো ব্যক্তিকে আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দেবে না। বিভিন্ন জরিপে যাদের নাম আসবে তারাই মনোনয়ন পাবেন। এসময় সেতুমন্ত্রী ঈদের আগেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের যেসব স্থানে মহাসড়কের দুইপাশে অবৈধ স্থাপনা রয়েছে তা অপসারণের জন্য হাইওয়ে পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে নির্দেশনা প্রদান করেন। মহাসড়কে চাঁদাবাজি প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, চাঁদাবাজিতে এককভাবে কেউ জড়িত নয়। এর সঙ্গে কিছু কিছু রাজনৈতিক নেতা-কর্মী, অসাধু কিছু পুলিশসহ দালালচক্র জড়িত রয়েছে। তিনি বলেন, আমরা সকলে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করলে মহাসড়কে চাঁদাবাজি ও অপরাধ থাকবে না। মন্ত্রী বলেন, ঈদে ঘরমুখো মানুষের যাত্রা নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন করতে পচনশীল ও রপ্তানীযোগ্য গার্মেন্টস পণ্যবাহী যানবাহন ব্যতীত সকল প্রকার কাভার্ডভ্যান, ট্রাক, লরিসহ ভারী যানবাহন চলাচল ঈদের আগে ও পরে ৩ দিন করে বন্ধ থাকবে। এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সওজ-কুমিল্লার অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী শাহাব উদ্দিন, নির্বাহী প্রকৌশলী সাইফ উদ্দিন আহমেদ, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক গোলামুর রহমান, হাইওয়ে কুমিল্লা অঞ্চলের পুলিশ সুপার পরিতোষ ঘোষ, বিআরটিএ-কুমিল্লা সার্কেলের সহকারি পরিচালক (ইঞ্জি) মো. নুরুজ্জামান, সদর দক্ষিণ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুপালী মণ্ডল প্রমুখ।

0 comments:

Post a Comment