Last update
Loading...

নিউইয়র্কে গ্রেফতার বাংলাদেশি কূটনীতিক জামিনে মুক্ত

গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে গ্রেফতার বাংলাদেশ দূতাবাসের ডেপুটি কনসাল জেনারেল শাহেদুল ইসলাম (৪৫) জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসের ‘ভারমন সি বেইন কারেকশনাল সেন্টার’ থেকে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাতে তিনি জামিনে মুক্তি পান। বাংলাদেশ সময় বুধবার সকালে নিউইয়র্কে বাংলাদেশ দূতাবাসের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান এ তথ্য জানিয়েছেন। কনসাল জেনারেল শামীম আহসান জানান, তিনি মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাত ৮টা ২০ মিনিটে ডেপুটি কনসাল জেনারেল শাহেদুল ইসলামকে জিম্মায় নিয়েছেন। এসময় দূতাবাসের প্রথম সচিব শামীম হোসাইন ও তৃতীয় সচিব আসিব আহমেদ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গত সোমবার সকালে নিউইয়র্কের কুইনস বরো থেকে কূটনীতিক শাহেদুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি নিউইয়র্কের কুইনসের পাশে জ্যামাইকা এলাকায় বাস করতেন। বাংলাদেশের এই কূটনীতিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, নিউইয়র্কে তার বাসায় এক বাংলাদেশি গৃহকর্মীকে তিনি তিন বছরের বেশি সময় ধরে সহিংস নির্যাতন চালাচ্ছেন।
এছাড়া তিনি হুমকি দিয়ে বিনা বেতনে ওই গৃহকর্মীকে কাজ করতে বাধ্য করেছেন। কুইন্সের ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি রিচার্ড ব্রাউনের দফতর থেকে প্রচারিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শাহেদুলের বিরুদ্ধে এক বিদেশিকে এনে তার বাসায় রেখে ২০১২ থেকে ২০১৬ সালের মে পর্যন্ত বিনা বেতনে জোর করে কাজ করানোর ঘটনায় শ্রম পাচার ও নির্যাতনের অভিযোগ আনা হয়েছে। বিচারক ড্যানিয়েল লুইস ৫০ হাজার ডলারের বন্ড বা ২৫ হাজার ডলার নগদে তার জামিন ঠিক করে দেন এবং তার পাসপোর্ট জব্দ করার নির্দেশ দেন। বিচারে দোষী সাব্যস্ত হলে তার সর্বোচ্চ ১৫ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে। মামলার শুনানির জন্য ২৮ জুন শাহেদুলকে আবার আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

0 comments:

Post a Comment