Last update
Loading...

হামাসের নতুন প্রধান ইসমাইল

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের নতুন নেতা নির্বাচিত হয়েছেন ইসমাইল হানিয়ে। ৫৪ বছর বয়সী ইসমাইল হানিয়ে খালিদ মিশালের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন। মিশাল দুই মেয়াদে এই পদে ছিলেন। খবর বিবিসি, আনাদুলুর। গাজা সিটি এবং দোহায় একযোগে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হামাসের প্রধান নির্বাচনের ভোটাভুটি হয়। রাফাহ সীমান্তের ক্রসিং বন্ধ থাকায় ইসমাইল হানিয়ে গাজার বাইরে যেতে পারেননি। তিনিই হলেন হামাসের প্রথম নেতা যিনি ফিলিস্তিনি এলাকার ভেতরে অবস্থান করছেন। এতদিন হামাসের সার্বিক নেতা ছিলেন খালেদ মিশাল। আর বিগত ১০ বছর ইসমাইল হানিয়ে গাজায় হামাস আন্দোলনের দায়িত্বে ছিলেন। এর আগে ২০০৬ সালে ইসমাইল হানিয়ে ফিলিস্তিনি জাতীয় কর্তৃপক্ষের প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন।
কিন্তু প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস তাকে পরের বছর জুনেই বরখাস্ত করেন। এরপর হামাস গাজা এলাকার শাসনভার নেয়। সে সময় মাহমুদ আব্বাসের নেতৃত্বাধীন ফাতাহ গ্রুপের সঙ্গে হামাস দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ে। ইসমাইল হানিয়েকে একজন বাস্তববাদী নেতা হিসেবে দেখা হয়। দায়িত্ব নিয়ে তিনি হয়তো হামাসের আন্তর্জাতিক বিচ্ছিন্নতা কাটানোর চেষ্টা করবেন বলে মনে করা হচ্ছে। সম্প্রতি হামাস তার নীতিমালা সংক্রান্ত একটি নতুন দলিল প্রকাশ করেছে। একে অনেকেই দেখছেন হামাসের ভাবমূর্তি কিছুটা নরম করার একটা চেষ্টা হিসেবে।

0 comments:

Post a Comment