Last update
Loading...

এফবিআইপ্রধান কোমিকে বরখাস্তে ট্রাম্পের সাফাই

এক টুইটার বার্তায় ডোনাল্ড ট্রাম্প লিখেছেন, জেমস কোমি রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাট দু পক্ষেরই আস্থা হারিয়েছেন। সেজন্যেই তাকে বরখাস্ত করা হলো। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, জেমস কোমি কাজ ঠিক মতো করছিলেন না বলেই পদটি তাকে হারাতে হয়েছে। জেমস কোমিকে বরখাস্তের সিদ্ধান্তের পর ট্রাম্প প্রশাসন জানিয়েছে নির্বাচনের ঠিক আগ মুহূর্তে ডেমোক্র্যাটিক পার্টি প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের ইমেইল কেলেঙ্কারিবিষয়ক তদন্ত যেভাবে তিনি চালাচ্ছিলেন সে কারণেই তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।
ডেমোক্র্যাটরা অবশ্য এই সিদ্ধান্তের বিষয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তারা বলছেন রাশিয়ার সাথে নির্বাচনের প্রচারণার সময় ট্রাম্প ক্যাম্পেইন দলের যে সম্পর্ক ছিলো সেটি নিয়ে জেসম কোমি যে তদন্ত করছিলেন সেটিই এখানে মুখ্য বিষয়। রাশিয়া মার্কিন নির্বাচনে কোনোভাবে হস্তক্ষেপ করেছে কিনা সেনিয়ে চলা এই তদন্তে বাধা দেয়াই তাকে বরখাস্ত করার পেছনের মুল কারণ। সিনেটে ডেমোক্র্যাট নেতা চার্লস শুমার এই সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যা দাবি করেছেন। তিনি বলেছেন, "কোমির বরখাস্ত হওয়ার বিষয়ে অনেক প্রশ্ন রয়ে গেছে। বিশেষ করে ট্রাম্প রাশিয়া সম্পর্কের বিষয়ে কোমি যে তদন্ত করছিলেন তার ভবিষ্যৎ কী হবে সে নিয়ে"। এই বরখাস্তের খবর নিয়ে ওয়াশিংটনের চলা তোলপাড়ের মধ্যেই সেখানে পৌঁছেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ। ঠিক এই মুহূর্তে তার সফর কী ইংগিত বহন করে সেটি নিয়েও ভাবছেন অনেকে। সূত্র : বিবিসি

0 comments:

Post a Comment