Last update
Loading...

জেলেদের আত্মনির্ভরশীল করে গড়ে তুলতে হবে

জেলেদের আত্মনির্ভরশীল করে গড়ে তুলতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে, যাতে তারা প্রজনন মৌসুমে ইলিশ ও জাটকা শিকার থেকে বিরত থাকেন। এতে মৎস্য সম্পদের উন্নয়ন হবে। ইলিশ বড় হলে রফতানি করে প্রচুর অর্থ উপার্জন করা সম্ভব হবে। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় দোহারের নয়াবাড়ী ইউনিয়নের ধোয়াইর ইউপি কার্যালয় চত্বরে মৎস্যজীবীদের মধ্যে চাল বিতরণ অনুষ্ঠানে সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি এসব কথা বলেন। একই দিন তিনি মাহমুদপুর ইউনিয়নেও মৎস্যজীবীদের মধ্যে চাল বিতরণ করেন। সালমা ইসলাম এমপি বলেন, দোহারের পদ্মা পাড়ের জেলেরা সারা বছর মাছ শিকার করে মানুষের আমিষের চাহিদা মেটান ও তাদের জীবিকা নির্বাহ করেন। তবে প্রজনন মৌসুম বাদ দিয়েই তাদের পেশা ধরে রাখতে হবে। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশের সাধারণ জেলেদের কথা চিন্তা করেই তাদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছেন। তবে এই প্রথম দোহারের দরিদ্র মৎস্যজীবীরা সরকারের সহায়তা পেলেন।
সংসদ সদস্য সালমা ইসলাম মৎস্যজীবীদের মাছ ধরার পাশাপাশি অন্য কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করারও তাগিদ দেন। যাতে তারা ইলিশের প্রজনন মৌসুমে সংসার চালাতে হিমশিম না খান। তিনি মৎস্যজীবীদের সন্তানদের লেখাপড়া করিয়ে প্রতিষ্ঠিত করারও অনুরোধ জানান। দোহারে প্রায় ৮৪০ জন জেলের প্রতিজনকে ৪০ কেজি করে ৪ মাস চাল বিতরণ করা হবে। এসব অনুষ্ঠানে দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কেএম আল আমিন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা হাবিবুল্লাহ মিয়া, তদারকি কর্মকর্তা জসীম উদ্দিন, মাহমুদপুর ইউপি চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন, নয়াবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান শামীম আহমেদ হান্নান, জাতীয় পার্টি ঢাকা জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, নবাবগঞ্জ উপজেলা সাবেক সভাপতি হুমায়ন কবির, দোহারের জাতীয় পার্টি সভাপতি ডা. আলাউদ্দিন আল আজাদ, সদস্য সচিব আবদুল আলীম, যুগ্ম আহ্বায়ক আফজাল শিকদার, লোকমান হোসেন, যুবসংহতির জসীম উদ্দিন পান্নু, ফরিদ হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

0 comments:

Post a Comment