Last update
Loading...

সুন্দরবনে আবারও আগুন : ৫ একর এলাকা পুড়ে ছাই

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনে আগুন লেগেছে আবারও। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে চাঁদপাই রেঞ্জের ধানসাগর স্টেশনের নাংলী ফরেস্ট ক্যাম্পের আবদুল্লাহর ছিলা এলাকায় এ আগুন লাগে। আগুনে প্রায় ৫ একর বনভূমির ছোট গাছপালা ও লতাগুল্ম পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এর আগে গত বছরের ২৮ মার্চ থেকে শুরু করে চাঁদপাই রেঞ্জে এক মাসে চারবার আগুন লাগে। এতে কয়েক কোটি টাকার বনজসম্পদ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এবারও একই এলাকায় আগুন লাগল। বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. সাইদুল ইসলাম জানান, শরণখোলার বন সংলগ্ন উত্তর রাজাপুর গ্রামের ২-৩শ’ লোক এবং শরণখোলা ও মোরেলগঞ্জের ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিটের চেষ্টায় শুক্রবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এ ঘটনায় সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মো. মেহেদিজ্জামানকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
সাত দিনের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। শরণখোলার ধানসাগর ইউপি সদস্য মো. জাকির হোসেন খান জানান, শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে তারা সুন্দরবনে আগুন লাগার খবর পান। পরে এলাকার ২-৩শ’ লোক নিয়ে তিনি ঘটনাস্থলে ছুটে যান। স্থানীয়রা কলস- বালতি নিয়ে আবদুল্লাহর ছিলায় পাশের খাল থেকে পানি নিয়ে প্রথমে আগুন নেভানোর চেষ্টা চালান। দুপুর ২টার দিকে ডিএডি মাসুদ শেখের নেতৃত্বে শরণখোলা ও মোরেলগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। আগুনে প্রায় ৪-৫ একর এলাকা পুড়ে গেছে। সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মো. মেহেদিজ্জামান জানান, আগুন লাগার নির্দিষ্ট কোনো কারণ জানা যায়নি। তবে এটা নাশকতামূলক বলে ধারণা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, শরণখোলা উপজেলার ধানসাগর ইউনিয়নের সুন্দরবন সংলগ্ন উত্তর রাজাপুর গ্রামের এক শ্রেণীর মৌসুমী মৎস্য শিকারি সুন্দরবনের মিঠা পানির মাছ শিকারের জন্য বনে আগুন দিয়ে থাকে।

0 comments:

Post a Comment