Last update
Loading...

সেনাশক্তির ওপরই ভরসা করতে চায় মোদি সরকার

ভারতের সেনাপ্রধান বিপীন রাওয়াতের সুরে সুর মিলিয়েছেন দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। কাশ্মীর আন্দোলন দমনে সেনা সদস্যদের ওপরই ভারত সরকার আপাতত নির্ভর করতে চায় বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন রাজনাথ। রোববার বিপীন বলেন, বিক্ষোভকারীরা পাথরের বদলে গুলি ছুড়লে ভালো হয়। তাহলে সেনাদের গুলি ছুড়তে সুবিধা হবে। একে সমর্থন করে সোমবার রাজনাথ বলেন, কাশ্মীরে ‘স্থায়ী’ সমাধানের পথে এগোচ্ছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। স্থায়ী সমাধান কী, তা অবশ্য স্পষ্ট করেননি তিনি। কিন্তু সরকারি সূত্রের মতে, বিরোধীরা যতই আলোচনার দাবি করুন, আপাতত অশান্ত উপত্যকাকে সেনা অভিযান চালিয়েই ঠাণ্ডা করতে চাইছে কেন্দ্র। খবর হিন্দুস্থান টাইমসের।
কাশ্মীরে সংঘাতের পেছনে পাকিস্তানকে দায়ী করে রাজনাথ বলেন, ‘কাশ্মীরের পাশাপাশি পাকিস্তান গোটা দেশে অশান্তি ছড়াতে তৎপর রয়েছে। কিন্তু সরকার স্থায়ী সমাধান নিয়ে আসার প্রশ্নে বদ্ধপরিকর।’ সরকারি সূত্রের মতে, অশান্ত কাশ্মীরকে বাগে আনতে সেনা হস্তক্ষেপই একমাত্র পথ বলে মনে করছেন সেনাপ্রধান বিপীন রাওয়াত। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার নিরাপত্তাবিষয়ক কমিটির বৈঠকে কাশ্মীরে শান্তি ফেরাতে কঠোর অবস্থান নেয়ার পক্ষে আলোচনা হয়। তারপরই ক্রমশ সেনা অভিযান তীব্র হয় কাশ্মীরজুড়ে। দু’দশক পরে ফের শুরু হয়েছে ঘরে ঘরে তল্লাশি অভিযান। এরই মধ্যে হিজবুল মুজাহিদিনের দুই নেতাকে হত্যা করা হয়েছে। অর্থাৎ কাশ্মীরে শান্তি ফেরাতে এ মুহূর্তে সেনাবাহিনীর ওপরই নির্ভর করছে বিজেপি সরকার।

0 comments:

Post a Comment