Last update
Loading...

'মদ খেয়েছিলাম, কিন্তু মাতাল ছিলাম না'

কলকাতার অভিনেত্রী সোনিকার মৃত্যু নিয়ে আবারও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে অভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়কে। বুধবার টালিগঞ্জ থানায় ডেকে তাকে আবার জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। খবর আনন্দবাজার'র। এর আগে মঙ্গলবার রাতে এক দফা জবানবন্দি দেন বিক্রম। ওইদিন রাত পৌনে ১০টা থেকে সোয়া ১টা পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা ধরে তাকে জিজ্ঞাবাদ করা হয়। পুলিশ জানান, জেরার মুখে বিক্রম স্বীকার করেন দুর্ঘটনার রাতে তিনি মদপান করেছিলেন। তবে একইসঙ্গে তার দাবি- তিনি মোটেই মাতাল ছিলেন না, গাড়ি চালানোর মতো অবস্থায় ছিলেন। এর আগে অবশ্য মদপানের বিষয়টি অস্বীকার করেছিলেন এ অভিনেতা। পুলিশের কাছে হাজিরা দেয়ার কদিন আগে নিজেই এক সংবাদ সম্মেলন ডাকেন বিক্রম। সেখানে তিনি দাবি করেন, দুর্ঘটনার রাতে তিনি মদপান করেননি। এরপর সোশ্যাল মিডিয়ায় দুর্ঘটনার রাতে পার্টিতে উপস্থিত অনেকেই দাবি করেন,
তারা ওই দিন বিক্রমকে মদপান করতে দেখেছেন। পার্টিতে উপস্থিত অভিনেতা অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়ও থানায় জানিয়েছেন, ওই রাতে বিক্রম মদপান করেছিলেন। এরপরই চাপের মুখে নিজের অবস্থান থেকে সরে আসেন বিক্রম চট্টোপাধ্যায়। জানা গেছে, বিক্রমের জবাবে সন্তুষ্ট নয় পুলিশ। দুর্ঘটনার পর গাড়িটি যেভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল তাতে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে- গাড়ির গতি অনেক বেশি ছিল। বিক্রমের গাড়ির ইলেকট্রনিক্স ডেটা রেকর্ডার বা ইডিআর-এর তথ্য খতিয়ে দেখবেন তদন্তকারীরা। উল্লেখ্য, গত ২৯ এপ্রিল ভোরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন অভিনেত্রী সোনিকা সিং চৌহান। দুর্ঘটনা কবলিত গাড়িটি চালাচ্ছিলেন তার বন্ধু বিক্রম চট্টোপাধ্যায়। এসময় তিনিও আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় ওই দিনই বিক্রম চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে গাফিলতির জন্য মৃত্যুর অভিযোগে মামলা করে পুলিশ। পরে একই অভি'আইন করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বন্ধ করেছিল জিয়া'যোগে সোনিকার পরিবার পক্ষ থেকে বিক্রমের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। ঘটনা তদন্তের জন্য চার সদস্যের বিশেষ দল তৈরি করেছে কলকাতা পুলিশ।

0 comments:

Post a Comment