Last update
Loading...

থাইরয়েড রোগ- কখন ডাক্তার দেখাবেন

থাইরয়েড গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত হরমোন শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের বৃদ্ধি ও বিভিন্ন কার্যক্রমের সঙ্গে জড়িত। শিশুকালে এ হরমোনের ঘাটতি হলে শিশু আকারে ছোট ও শিশুর মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা কমে যায়। এ হরমোনের পরিমাণ বেড়ে গেলে শরীর কংকালসার হয়ে পড়ে। থাইরক্সিন হরমোনের প্রভাবে মস্তিষ্ক ও হার্টের কার্যকারিতা বেড়ে যায়। থাইরয়েড গ্রন্থির বৃদ্ধি- যখন চিকিৎসার প্রয়োজন নেই
-বয়ঃসন্ধি সময় -গর্ভাবস্থায়
কখন চিকিৎসা প্রয়োজন
- থাইরয়েড হরমোনের ঘাটতি যা সাধারণত আয়োডিনের অভাব থেকে হয়।
- থাইরয়েড হরমোনের অতিরিক্ত নিঃসরণের ফলে গ্রন্থির আকার বৃদ্ধি পায়।
- থাইরয়েড গ্রন্থির টিউমার ও ক্যান্সার।
হরমোন স্বল্পতার উপসর্গ
- ঠাণ্ডা বেশি লাগা ও ওজন বেড়ে যাওয়া।
- খাবারে রুচি কমে যাওয়া ও কোষ্ঠকাঠিন্য।
- ঘুম ঘুম ভাব, স্মৃতিশক্তি লোপ পাওয়া।
- মেয়েদের মাসিকের সমস্যা হওয়া।
হরমোন বেড়ে গেলে উপসর্গ
- গরম সহ্য করতে না পারা ও ওজন কমে যাওয়া।
- ক্ষুধা বেড়ে যাওয়া ও ঘুম না হওয়া।
- বুক ধড়ফড় করা ও ঘাম হওয়া।
হরমোন সমস্যা হলে সাধারণত ওষুধ দিয়ে চিকিৎসা করা হয়। কখনও কখনও অপারেশনের প্রয়োজন হয়।
নাক কান গলা রোগ বিশেষজ্ঞ ও সার্জন
ইমপাল্স হাসপাতাল
তেজগাঁও, ঢাকা। মোবাইল : ০১৭১৫০১৬৭২৭

0 comments:

Post a Comment