Last update
Loading...

নির্বাচন পদ্ধতির পরিবর্তন করতে হবে

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, অতীতের সব নির্বাচনই বিতর্কিত। এ কারণে নির্বাচন পদ্ধতির পরিবর্তন করতে হবে। আগামী নির্বাচনে ৩০০ আসনেই দলের একক প্রার্থী দেয়া হবে জানিয়ে তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, নির্বাচন আর বেশি দিন নেই। তাই ঘরে বসে থাকা যাবে না। দলকে সংগঠিত করতে হবে। জাতীয় পার্টি রাজনীতিতে এখন মিডল ফ্যাক্টর। কাজেই জনগণের ভালোবাসা নিয়ে জাতীয় পার্টিই আগামীতে ক্ষমতায় আসবে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির কড়া সমালোচনা করে এরশাদ বলেন, দেশে এখন প্রতিদিন খুন হচ্ছে। গুম হচ্ছে। পত্রিকা খুললেই খালি খুন, গুম আর ধর্ষণের খবর। বিচারহীনতার কারণে অপরাধপ্রবণতা বেড়ে গেছে। সরকারি ব্যাংক এখন খালি। ৭৪ হাজার কোটি টাকা পাচার হয়ে গেছে বিদেশে। জনগণের এসব টাকা ফিরিয়ে আনতে হবে। সোমবার বিকালে রাজশাহী মহানগর জাতীয় পার্টির সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। নগরীর তেরখাদিয়া স্টেডিয়াম চত্বরে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী মহানগর জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক শাহাবুদ্দিন বাচ্চুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন দলের মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি, ফয়সাল চিশতি, নুরুল ইসলাম এমপি, সুনীল শুভ রায় ও রাজশাহী মহানগর জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান ডালিম। এরশাদ তার বক্তব্যে বলেন, ক্ষমতায় ছিলাম, তখন দেশের জন্য অনেক কিছুই করেছি। উত্তরবঙ্গের যোগাযোগ ও বিদ্যুৎ ব্যবস্থার উন্নয়ন করেছি। রংপুরে বিমানবন্দর না করে রাজশাহীতে করেছি। জেলা ও উপজেলা করেছি। কিন্তু পরবর্তী সরকার প্রতিহিংসার কারণে উপজেলা বিলুপ্ত করে দিয়েছিল।
বিএনপির কঠোর সমালোচনা করে তিনি আরও বলেন, ’৯৬ সালে নির্বাচনের পর বিএনপির দুই নেতা কারাগারে গিয়ে আমাকে প্রধানমন্ত্রী করে সরকার গঠন করতে চেয়েছিল। আমি ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছিলাম। কারণ তারাই প্রতিহিংসার রাজনীতি শুরু করেছিল। ক্ষমতার মোহে অন্ধ হয়ে গিয়েছিল তারা। এখন তার খেসারত দিচ্ছে। আওয়ামী লীগের সঙ্গেও জোট বেঁধে কোনো লাভ হয়নি উল্লেখ করে সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, আমাদের সমর্থন নিয়ে তারা সরকার গঠন করল। কিন্তু আমরা কী পেলাম! কিছুই দেয়া হয়নি। কেউ সুবিচার করেনি। আনোয়ার হোসেন মঞ্জু দিয়ে দল ভাঙা হয়েছে। জরিমানা করা হয়েছে। খালি নির্যাতিত হয়েছি। তাই এবার এককভাবে নির্বাচন করার প্রস্তুতি চলছে। এজন্য অতীতের ভুলভ্রান্তি ভুলে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। পরে রাজশাহী মহানগর জাতীয় পার্টির নতুন সভাপতি হিসেবে শাহাবুদ্দিন বাচ্চু ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান ডালিমের নাম ঘোষণা করেন দলের মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার। এদিকে আজ সকাল ১০টায় নগরীর উত্তরা কমিউনিটি সেন্টারে জেলা জাতীয় পার্টির সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ উপস্থিত থাকবেন।

0 comments:

Post a Comment