Last update
Loading...

গুগল ডকস স্ক্যামে খসল ৯০ হাজার ডলার

সাম্প্রতিক সময়ে গুগলের অনলাইন ডকুমেন্ট শেয়ার ও এডিটিং প্ল্যাটফর্ম ‘গুগল ডকস’-এ ফিশিং স্ক্যাম ছড়ানোর ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের জিমেইল গ্রাহকদের লক্ষ্য করায় অঙ্গরাজ্যটির ক্ষতি হয়েছে ৯০ হাজার মার্কিন ডলার। অঙ্গরাজ্যটির প্রধান তথ্য সুরক্ষা কর্মকর্তা ক্রিস্টোফার বিউজের বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রায় ২৫ হাজার সরকারি কর্মকর্তা এ ফিশিং ই-মেইল পেয়েছেন। আর বিশ্বজুড়ে বহু গ্রাহক কয়েকবার ই-মেইলটি পেয়েছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য গ্রাহক বিশ্বাসযোগ্য সংস্থার থেকেই ই-মেইল পেয়েছেন বলে উল্লেখ করা হয়। এর আগে গুগলের পক্ষ থেকে বলা হয়, ০.১ শতাংশ জি-মেইল ব্যবহারকারী এই স্ক্যামের শিকার হয়েছেন। এতে প্রায় ১০ লাখ গ্রাহক ভুক্তভোগী হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিউজ বলেন, কর্মীরা নিজেদের সাধারণ কাজ ছেড়ে সাইবার হামলার সঙ্গে লড়তে গিয়েই তাদেরকে মূল্য দিতে হয়েছে। ‘আমি ধারণা করছি প্রতিজন কর্মীর ওপর তিন মিনিট সময় গেছে, কিছু ক্ষেত্রে সময়টা আরও বেশি হতে পারে। হামলা হচ্ছে তা বোঝার পাশাপাশি এটির মূল্য কেমন সেটি বোঝাটাও মানুষের জন্য জরুরি’, বলেন বিউজ। বিউজ আরও বলেন,
এই হামলার মূল্য আরও বেশি হতে পারত। মিনেসোটা সরকারি সংস্থাগুলো সাধারণত গুগল ডকস বা জি-মেইল ব্যবহার করেন না। ‘ফিশিং স্ক্যাম’ হল এমন ধরনের হামলা যেখানে গ্রাহককে ভুল বুঝিয়ে, ক্ষেত্রবিশেষে পরিচয় চুরি করে তার ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয়া হয়। গুগলের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘স্ক্যাম ছড়ানোর এক ঘণ্টার মধ্যেই ভুয়া পেইজ এবং অ্যাপ্লিকেশন সরিয়ে ফেলা হয়েছে।’ পরে গুগলের আরেকটি বিবৃতিতে বলা হয়, ‘গ্রাহকের যোগাযোগের তথ্য হাতিয়ে নেয়া হয় এবং তা ব্যবহার করা হয়েছে। আমাদের তদন্ত বলছে আর কোনো ডেটা ছড়ানো হয়নি।’ গ্রাহকদের আশ্বস্ত করে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, এ ব্যাপারে গ্রাহকদের বাড়তি কোনো পদক্ষেপ নেয়ার প্রয়োজন নেই। যেসব গ্রাহক তাদের অ্যাকাউন্টের সঙ্গে সংযুক্ত তৃতীয় পক্ষের অ্যাপ পরীক্ষা করে দেখতে চান তারা ‘গুগল সিকিউরিটি চেকআপ’ ব্যবহার করতে পারেন বলেও উল্লেখ করা হয়। -আইটি ডেস্ক

0 comments:

Post a Comment