Last update
Loading...

বগুড়ায় দুই প্রার্থীর ভোট বর্জন, পুনর্নির্বাচন দাবি

বগুড়া জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পক্ষে জোরপূর্বক ভোট নেয়া ও অনিয়মের অভিযোগে অপর দুই প্রার্থী আজ বেলা ১২টায় ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়ে নতুন করে নির্বাচন দেয়ার দাবি জানান। গত ২৮ ডিসেম্বর ২০১৬ চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা থাকলেও উচ্চ আদালতে মামলার কারণে স্থগিত হয়ে যায়। আবারো ২৫ এপ্রিল ২০১৭ নির্বাচন কমিশন পক্ষ থেকে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হলে অপর একটি মামলার কারণে স্থগিত হয়ে যায়। পরে নির্বাচন কমিশন আজ ২৫ মে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেন। আজ বৃহস্পতিবার বগুড়া জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছিল। সকাল ৯টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণের সময় নির্ধারণ ছিল। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ডা. মকবুল হোসেন (আনারস), স্বতন্ত্র প্রার্থী সোলাইমান আলী মাষ্টার (মটর সাইকেল) ও জেপি প্রার্থী এটিএম আমিনুল ইসলাম (ঘোড়া)।
মোট ১৬০২ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী সোলাইমান আলী ও জেপি প্রার্থী আমিনুল ইসলাম চৌধুরী দুপুর ১২টায় বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে জানান, ‘প্রায় প্রতিটি কেন্দ্রেই আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পক্ষে প্রভাব বিস্তার করে জোরপূর্বক ভোট নেয়া হচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে আমাদের কর্মীদের বের করে দেয়া হয়েছে। এসব বিষয় জানিয়ে ফোনে বগুড়া জেলা প্রশাসক, নির্বাচন কর্মকর্তা, ঢাকা নির্বাচন কমিশন সচিবালয় ও গোয়েন্দা সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। জোরপূর্বক ভোট আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পক্ষে নেয়ার কারণে বেলা ১২টার পর আমরা ভোট বর্জন করেছি। পাশাপাশি নতুন করে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি।’ বগুড়া জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা দেওয়ান মোহাম্মদ সারোয়ার জাহান জানান, আমাদের কাছে কোনো অভিযোগ আসেনি। নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

0 comments:

Post a Comment