Last update
Loading...

ফকিরাপুলে হোটেল থেকে তরুণীর লাশ উদ্ধার

রাজধানীর ফকিরাপুলের একটি আবাসিক হোটেল থেকে অজ্ঞাত পরিচয় এক তরুণীর (২২) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার দিনগত রাত ১২টার দিকে ফকিরাপুল আল শাহীন নামের আবাসিক হোটেলের চতুর্থ তলার একটি কক্ষ থেকে ওই তরুণীর লাশ উদ্ধার করা হয়। এসময় তরুণীর সঙ্গে থাকা মাত্র দুই মাস বয়সের একটি অসুস্থ শিশু কন্যাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আল শাহীন আবাসিক হোটেলের মালিক শহীদ উল্লাহকে আটক করেছে পুলিশ। মতিঝিল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) বিজন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, রোববার বিকালে স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে এক শিশু সন্তানসহ দু'জন হোটেলের চতুর্থ তলার ১৬ নম্বর কক্ষটি ভাড়া নেয়। রাতে ওই কক্ষ থেকে একটি শিশুর অনবরত কান্নার শব্দ শুনতে পায় হোটেল কর্তৃপক্ষ। পরে কক্ষের সামনে গিয়ে সেটি বাইরে থেকে তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয় হোটেলের লোকজন।
পুলিশ গিয়ে তালা ভেঙে গলায় ওড়না গিঁট দেয়া অবস্থায় খাটের ওপর থেকে ওই তরুণীর লাশ উদ্ধার করে। এ সময় নিহত তরুণীর পাশে থাকা অসুস্থ অবস্থায় দুই মাস বয়সী এক কন্যা শিশুকে উদ্ধার করে ঢামেকের নবজাতক ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পুলিশের ধারণা, ওই নারীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ আরো জানায়, স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে উঠলেও হোটেলটির রেজিস্টার্ড বুকে তাদের নাম-পরিচয় বা মোবাইল নম্বর তালিকাভুক্ত করেনি হোটেল কর্তৃপক্ষ। যার কারণে নিহত ওই তরুণীর পরিচয় বের করতে পারেনি পুলিশ। পুলিশ জানায়, তরুণীর সঙ্গে থাকা পুরুষ ব্যক্তিটির সন্ধ্যান করছেন তারা। তাকে পাওয়া গেলে ওই তরুণীর পরিচয় এবং ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটন সম্ভব হবে। হোটেল রেজিস্টার্ড বইয়ে নিহত ওই তরুণী এবং পুরুষ ব্যক্তির নাম-পরিচয় তালিকাভুক্ত না করার কারণে হোটেলটির মালিক শহীদ উল্লাহকে আটক করা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ। নিহত তরুণীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

0 comments:

Post a Comment