Last update
Loading...

টার্নবুলের ফোন কেটে দিয়ে এবার ভিন্নসুর ট্রাম্পের

অস্ট্রেলিয়ার প্র্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুলের সঙ্গে তার সম্পর্ক ‘চমৎকার’ বলে উল্লেখ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্র্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বৃহস্পতিবার নিউইয়র্কে এক বৈঠক শেষে এ কথা বলেন তিনি। প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেয়ার এক মাসের মাথায় ফেব্রুয়ারি মাসে টার্নবুলকে টেলিফোন করেন ট্রাম্প। দু’নেতার মধ্যে ফোনালাপের একপর্যায়ে টেলিফোন লাইন কেটে দেন ট্রাম্প। সেই আলাপচারিতাকে পরে তিনি বলেছিলেন ‘সবচেয়ে বাজে ফোনালাপ’। দুই মাস পর বৃহস্পতিবার সুর পাল্টে ট্রাম্প জানান, তিনি অস্ট্রেলিয়াকে ভালোবাসেন। তার সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর যে বৈঠক হয়েছে তা ছিল অসাধারণ। খবর বিবিসির। যুক্তরাষ্ট্র সফররত অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী টার্নবুলের সঙ্গে বৃহস্পতিবার ট্রাম্প তার নিজ শহর নিউইয়র্কে বৈঠক করেন। বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা অসাধারণ একটি বেঠক করেছি। আমাদের মধ্যে একটি চমৎকার সম্পর্ক বিদ্যমান। আমি অস্ট্রেলিয়াকে ভালোবাসি, সবসময় সেই ভালোবাসা ছিল, তা অব্যাহত থাকবে।’
দুই দেশের বন্ধন জোরদারের বিষয়টি উল্লেখ করে ট্রাম্প জানান, বৈঠকে তারা অর্থনৈতিক, বাণিজ্য এবং অভিবাসন ইস্যুসহ জাতীয় নিরাপত্তার বিষয়ে আলাপ করেছেন। সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা প্রশাসন অস্ট্রেলিয়ায় আশ্রয়প্রার্থী প্রায় ১২০০ জনকে যাচাই সাপেক্ষে যুক্তরাষ্ট্রে নেয়ার আশ্বাস দিয়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রে সরকার পরিবর্তনের পরিপ্রেক্ষিতে অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী গত ফেব্রুয়ারিতে ফোন করে ট্রাম্পের কাছে ওই চুক্তির ভবিষ্যৎ সম্পর্কে স্পষ্ট বক্তব্য চান। কিন্তু ট্রাম্প বলেন, ওই শরণার্থীদের যুক্তরাষ্ট্রে জায়গা দিলে তা ‘বোস্টনে হামলাকারীদের মতো নতুন কোনো বোমাবাজকে আশ্রয় দেয়ার শামিল’ হবে। একপর্যায়ে টার্নবুলের মুখের ওপর ট্রাম্প বলে দেন, তিনি একই দিনে বহু বিশ্বনেতার সঙ্গে কথা বলেছেন। কিন্তু এ পর্যন্ত এটিই হচ্ছে তার কাছে সবচেয়ে ‘জঘন্য’ ফোনালাপ। ওই ফোনালাপের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে বৃহস্পতিবার ট্রাম্প জানান, এ সংক্রান্ত সংবাদগুলো ছিল ভুয়া। অস্ট্রেলিয়াকে ‘বিশ্বের অন্যতম সেরা সুন্দর দেশ’ উল্লেখ করে ট্রাম্প জানান, তিনি শিগগিরই সেখানে সফরে যাবেন। তবে কবে নাগাদ তার এই সফর হবে তা তিনি জানাননি।

0 comments:

Post a Comment