Last update
Loading...

রাজনগরের বিভিন্ন সড়কের ৮টি পয়েন্ট যেন মরণফাঁদ

মৌলভীবাজার জেলার রাজনগরের বিভিন্ন সড়কের ৮টি চৌমোহনা/ত্রিমোহনা পয়েন্ট যেন মরণফাঁদ। রাজনগর হয়ে একটি আঞ্চলিক মহাসড়কসহ মোট ৮টি রুট এবং অনেক সময় বৃহত্তর সিলেটের সাথে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের যান চলাচলের একমাত্র রুট মৌলভীবাজার-রাজনগর ভায়া ফেঞ্চুগঞ্জ মহাসড়ক দিয়ে অব্যাহতভাবে হাজার হাজার ছোট-বড় গাড়ি চলাচল করছে। ফলে সড়ক গুলোর অবস্থা বেহাল হচ্ছে, ঘটছে নানান দুর্ঘটনা। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাজনগর উপজেলার বিভিন্ন সড়ক ও মহাসড়ক দিয়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের দূরপাল্লার গাড়ি সহ আঞ্চলিক গাড়িগুলো চলাচল করছে। এসব সড়কে কলেজ পয়েন্টসহ মোট ৮টি বিপজ্জনক পয়েন্টে কোনো গোলচক্কর কিংবা ট্রাফিক ব্যবস্থা না থাকায় এমনকি মাত্রাতিরিক্ত যান চলাচলের কারণে সড়কগুলোর অবস্থা বেহাল হচ্ছে। রাজনগরের বিভিন্ন সড়কের বিপজ্জনক ৮টি পয়েন্ট হচ্ছে- কলেজ ত্রিমোহনা পয়েন্ট, গোবিন্দবাটি বটতলা ত্রিমোহনা পয়েন্ট, মহলাল ত্রিমোহনা পয়েন্ট, মুন্সিবাজার ত্রিমোহনা পয়েন্ট, ডিএস মাদ্রাসা চৌমোহনা পয়েন্ট, কালাইগুল বাজার চৌমোহনা পয়েন্ট, টেংরাবাজার ত্রিমোহনা পয়েন্ট, রাজনগর পোর্টিয়াস স্কুল চৌমোহনা পয়েন্ট। ব্যস্ততম বেহাল এসব সড়কে যানবাহন চলাচলের অবস্থা দিনদিন ঝুঁকিপূর্ণ হচ্ছে, ঘটছে নানা দুর্ঘটনা। রাজনগর থানা পুলিশ সূত্রে জানাযায়, চলতি বছরের জানুয়ারী থেকে মে মাস পর্যন্ত ৫ মাসে মোট ১৫টি ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে মারা গেছে ৪ জন, মামলা হয়েছে মাত্র ২টি।
এদিকে প্রায় সময় ঢাকা-শেরপুর-সিলেট মহাসড়ক ও সাদিপুর এলাকায় কুশিয়ারা ব্রিজ সংস্কারকরণসহ বিভিন্ন কারণে বৃহত্তর সিলেটের সাথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম হয়ে পড়ে মৌলভীবাজার-ফেঞ্চুগঞ্জ-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়ক। ফলে মাত্রাতিরিক্ত যানবাহন চলাচলের কারণে রাজনগর এলাকার বিভিন্ন পয়েন্ট হয়ে পড়েছে ঝুঁকিপূর্ণ, ঘটছে নানা দুর্ঘটনা। সম্প্রতি সিলেট সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কুশিয়ারা নদীর উপর শেরপুর ব্রিজের সংস্কার কাজের জন্য আগামী ৯ জুন থেকে ২২ জুন পর্যন্ত ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শেরপুর-সিলেট এলাকায় যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। এ সময় বিকল্প হিসেবে সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ-রাজনগর ভায়া মৌলভীবাজার আঞ্চলিক মহাসড়ক দিয়ে যানবাহন গুলো চলাচল করবে। পাথরবাহী ট্রাকসহ ভারী এসব যানবাহন/পরিবহন চলাচল বৃদ্ধি পাওয়ায় এবং যথা সময়ে ভঙ্গুর রাস্থাগুলোর সংস্কার কাজ না’করায় সড়কের অবস্থা বেহাল হচ্ছে। এতে রাজনগর সহ মৌলভীবাজারের সচেতন মহল বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোয় ক্ষব্ধ প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন। এ বিষয়ে রাজনগরের আপামর জনসাধারণের প্রতিক্রিয়া উপলব্ধি করে এবং সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে রাজনগর থানা ও মৌলভীবাজার ট্রাফিক বিভাগের আয়োজনে এক উদ্ধুদ্ধকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
গত ২১ মে রাজনগর গালফ্ কমিউনিটি সেন্টারে রাজনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল বণিকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টি.আই) মাহফুজুর রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান দেঃ খয়রুল মজিদ ছালেক, ইউপি চেয়ারম্যান শামসুন্নুর আজাদ, ইউপি চেয়ারম্যান নকুল চন্দ্র দাশ, রাজনগর প্রেসক্লাব সম্পাদক আব্দুর রহমান সোহেল, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আব্দুল কাদির ফৌজি, শ্রমিক নেতা জগলুল আহমদসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন। উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, চালক ও সাধারণ মানুষ সচেতন হলে সড়ক দুর্ঘটনা অনেকটাই কমে যাবে। রাজনগরকে দূর্ঘটনা প্রবণ এলাকা চিহ্নিত করে বিপজ্জনক পয়েন্টে গোলচক্কর নির্মাণ ও ট্রাফিক সিস্টেম চালু করার দাবি জানানো হয়। এ ব্যাপারে রাজনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল বণিক বলেন, রাজনগর উপজেলার বিভিন্ন সড়কে বিশেষ করে সিলেট-রাজনগর-মৌলভীবাজার আঞ্চলিক মহা সড়কে যানবাহন চলাচল বৃদ্ধি পাওয়ায় দুর্ঘটনা প্রতিরোধে রাজনগর থানা পুলিশের বিভিন্নমুখী প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।

0 comments:

Post a Comment