Last update
Loading...

পানামার সাবেক স্বৈরশাসক নরিয়েগার মৃত্যু

পানামার সাবেক স্বৈরশাসক জেনারেল ম্যানুয়েল অ্যান্তোনিও নরিয়েগা মারা গেছেন। সোমবার রাতে ৮৩ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয়েছে বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। সম্প্রতি নরিয়েগার মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার হয়েছিল। এরপর থেকে তিনি রক্তক্ষরণজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। তার মৃত্যুর খবর টুইট করে নিশ্চিত করেছেন পানামার প্রেসিডেন্ট হুয়ান কার্লোস ভারেলা। খবর দ্য গার্ডিয়ানের। প্রেসিডেন্ট কার্লোস বলেন, ‘ম্যানুয়েল নরিয়েগার মৃত্যুতে আমাদের ইতিহাসের একটি অধ্যায়ের সমাপ্তি হল। তার মেয়েরা এবং তাদের পরিবার নরিয়েগার আত্মার শান্তি কামনা করেন।’ জানুয়ারিতে মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের পর মার্চ মাসে কোমায় চলে যান নরিয়েগা। সরকারি এক কর্মকর্তা বলেন, হঠাৎ করেই নরিয়েগার শারীরিক অবস্থা খারাপ হতে থাকে এবং রাত ১১টার দিকে তিনি মারা যান। নরিয়েগা ১৯৮৩ থেকে ১৯৮৯ সাল পর্যন্ত পানামা শাসন করেন। ১৯৮৯ সালে পানামা আক্রমণের আগ পর্যন্ত সিআইএর একজন গুপ্তচর হিসেবে কাজ করেন তিনি।
দক্ষিণ আমেরিকায় সমাজতন্ত্রের অগ্রযাত্রা ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্রের ঘনিষ্ঠ মিত্র ছিলেন তিনি। তবে ১৯৮৯ সালে প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশের আমলে পানামায় অভিযান চালিয়ে নরিয়েগাকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি মাদক পাচারকারীদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখতেন এবং বিরোধীদের দমনে হত্যা-নির্যাতন চালাতেন। গ্রেফতারের পর মাদক পাচার, হত্যা, অর্থ পাচার ও নির্যাতনের অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে নরিয়েগার বিচার হয়। সেখানেই তাকে আজীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছিল। ২০১০ সালে তাকে ফ্রান্সে পাঠিয়ে দেয়া হয়। সেখানে তিনি মানি লন্ডারিং মামলায় অভিযুক্ত ছিলেন। পরে আবার পানামা ফেরেন। গত জানুয়ারিতে মস্তিষ্কে অপারেশনের জন্য তাকে মুক্তি দিয়ে পানামায় গৃহবন্দি রাখার আদেশ দেয়া হয়।

0 comments:

Post a Comment