Last update
Loading...

রাণীনগরে লিচু বিক্রয়ের ধুম

নওগাঁর রাণীনগরে বাজারে এসেছে সুস্বাদু রসালো মৌসুমি ফল লিচু। পুরোদমে আমদানী না হলেও বাজারের মোড়ে মোড়ে বাঁশের তৈরি খাছি ভর্তি পাকা লিচু বিক্রয়ের ধুম পড়েছে। এবারের আবহাওয়া লিচু চাষের পুরোপুরি অনুকূলে না থাকলেও নির্ধারিত সময়ে লিচু পাকাই বাজারে আসতে শুরু করেছে। ব্যবসায়ীরা লিচুর ঝোপা হাতে নিয়ে নানান সুরের হাকডাক দিয়ে রসালো এই ফল বিক্রয় করছে। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করার জন্য কেউ কেউ আবার প্রতি শ’ লিচুতে কিছুটা বেশি দিয়ে একই দামে বিক্রয় করছে। লিচু ফলটি কয়েকটি জাতের হওয়ায় ইতিমধ্যে নাম ও শ্রেণী ভেদে দেশী ছোট জাতের কথিত মাদ্রাজী লিচু গুলো বিশেষ করে রাণীনগর সদরের বাজার গুলোতে বেশি আসায় বিক্রয়ও হচ্ছে পুরোদমে। তবে বোম্বাই, এলাচী, চায়না সহ বিভিন্ন জাতের লিচু বাজারে আসতে আরো কিছু দিন সময় লাগবে এমনটায় বলছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। জানা গেছে, উপজেলার সদরের ষ্টেশন রোড, বাসষ্ট্যান্ড, খাঁনপুকুর,আবাদপুকুর, কুজাইল, বেতগাড়ী সহ বিভিন্ন বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, আমরা নাটোর জেলার মালঞ্চি, রাজশাহীর বাঘা ও দিনাজপুর জেলার নানান এলাকা থেকে মাদ্রাজী জাতের লিচু পাইকারি নিয়ে এসে রাণীনগরে বেচা-কেনা করছি। দেশের অন্যান্য এলাকার লিচুর চাইতে এই লিচু গুলোর চাহিদা বর্তমানে বেশি।
দাম কম হওয়ায় ক্রেতারা মৌসুমি ফল হিসেবে রসালো লিচু বেশি বেশি করে কিনছে। এখানে মাদ্রাজী জাতের লিচু গুলো প্রতি শ’ দুইশ থেকে মান ভেদে আড়াইশ’ টাকা পর্যন্ত বেচা-কেনা হচ্ছে। তবে বোম্বাই সহ অন্য জাতের ভাল লিচু বাজারে আসলে দাম চরা হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। প্রতি বছরের তুলনায় এবছর বৈরি আবহাওয়ার কারণে লিচুর দাম একটু বেশি হতে পাড়ে। ক্রেতারা জানান, বর্তমান বাজারের লিচু আকারে মাঝারি সাইজের হলেও সুস্বাদু হওয়ার কারণে আমরা কিছুটা বেশিই কিনছি। তবে দাম একটু তুলনা মূলক বেশি হলেও স্বাদ ভাল হওয়ায় খুব একটা বেশি মনে হচ্ছে। চলতি বোরো ধানের কৃষকরা ধানের ভাল দাম পাওয়ায় মৌসুমি ফল-মূলের প্রতি তাদের কেনার আগ্রহটা বেশি। লিচু ব্যবসায়ী সোহেল রানা জানান, প্রতি বছরের তুলনায় চলতি বছরে রসালো মৌসুমি ফল লিচু বাজারে একটু আগেই পেয়েছি। বিশেষ করে নাটোর ও পাবনার ঈশ্বরদীতে পুরোদমে লিচু নামানো শুরু হওয়ায় আমরা ওই এলাকা থেকে পাইকারি নিয়ে রাণীনগর এলাকায় বিক্রয় করছি। চাহিদা বেশি থাকায় আমাদের ব্যবসা এবার ভাল হচ্ছে। তবে সপ্তাহ খানিক পরে জামাই-মেয়ের আনা-নেওয়ার ধুম পড়লে আমাদের ব্যবসা আরো ভাল হবে।

0 comments:

Post a Comment